ক্যাটাগরি: আলোকচিত্র | নানাবিধ | শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি

ছবিতে বাংলার শিল্পকর্ম ও মাছঃ ২০০৯ (পর্ব-১)

বলা হয়ে থাকে মাছে-ভাতে বাঙ্গালী। বাংলা সংস্কৃতির সাথে তাই মাছ মিশে আছে ওতপ্রোতভাবে । বাঙ্গালীর শিল্পকর্মে মাছের প্রাধান্য থাকবে তাই স্বাভাবিক। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে শুরু হওয়া বার্ষিক চারুকলা প্রদর্শনী ২০০৮-২০০৯ এ উপস্থাপিত অনেক শিল্পকর্মও সেটি সমর্থন করে। উক্ত প্রদশর্নীতে আমার তোলা কয়েকটি ছবি যেন সে কথাটিই স্মরণ করে দেয় বারবার।

শিল্পকর্ম- মাছ, শিল্পী- সুলতানা সোনিয়া জাহান, মাধ্যম- উডকোলাজ

শিল্পকর্ম- মাছ, শিল্পী- সুলতানা সোনিয়া জাহান, মাধ্যম- উডকোলাজ

শিল্পকর্মঃ লোকজ নকশা, শিল্পীঃ নওরোজ আলম, মাধ্যমঃ পোস্টার রঙ

শিল্পকর্মঃ লোকজ নকশা, শিল্পীঃ নওরোজ আলম, মাধ্যমঃ পোস্টার রঙ

শিল্পকর্মঃ নকশী সরা, শিল্পীঃ শাইকা শারমিন, মাধ্যমঃ পোষ্টার কালার

শিল্পকর্মঃ নকশী সরা, শিল্পীঃ শাইকা শারমিন, মাধ্যমঃ পোষ্টার কালার

শিল্পকর্মঃ পেঁচা ও মাছ-১, শিল্পীঃ সোভিয়া মাহমুদা, মাধ্যমঃ ধাতু"
শিল্পকর্মঃ পেঁচা ও মাছ-২, শিল্পীঃ সোভিয়া মাহমুদা, মাধ্যমঃ ধাতু

শিল্পকর্মঃ পেঁচা ও মাছ-২, শিল্পীঃ সোভিয়া মাহমুদা, মাধ্যমঃ ধাতু

শিল্পকর্ম- নিসর্গ, শিল্পী- জাহাঙ্গীর আলম, মাধ্যম- কালি ও কলম

শিল্পকর্ম- নিসর্গ, শিল্পী- জাহাঙ্গীর আলম, মাধ্যম- কালি ও কলম

শিল্পকর্ম- ডিজাইন, শিল্পী- সূলতানা নাসরিন, মাধ্যম- পোস্টার কালার

শিল্পকর্ম- ডিজাইন, শিল্পী- সূলতানা নাসরিন, মাধ্যম- পোস্টার কালার

শিল্পকর্ম- ডিজাইন, শিল্পী- মোসাঃ ফারহানা ইয়াসমিন, মাধ্যম- পোস্টার কালার

শিল্পকর্ম- ডিজাইন, শিল্পী- মোসাঃ ফারহানা ইয়াসমিন, মাধ্যম- পোস্টার কালার

শিল্পকর্ম- দিন-১, শিল্পী- এ.এইচ.এম. তাহমিদুর রহমান, মাধ্যম- মিশ্র (প্রিন্ট)

শিল্পকর্ম- দিন-১, শিল্পী- এ.এইচ.এম. তাহমিদুর রহমান, মাধ্যম- মিশ্র (প্রিন্ট)

পুনশ্চঃ
উক্ত প্রদশর্নীতে ছবি তোলার এবং এখানে প্রকাশ করার সুযোগ করে দেবার জন্য আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সম্মানিত আহ্বায়ক, বার্ষিক চারুকলা প্রদশর্নী কমিটি; সম্মানিত সভাপতি, চারুকলা বিভাগ, রাবি; শ্রদ্ধেয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ, চারুকলা বিভাগ, রাবি এবং সশ্রদ্ধ শিল্পীবৃন্দের প্রতি যাদের সহযোগিতা ও সমর্থন ছাড়া এই চিত্র গুলো এখানে প্রকাশ করা সম্ভব হত না।


Visited 684 times, 1 visits today | Have any fisheries relevant question? Ask here

Visitors' Opinion

লেখক

প্রফেসর, ফিশারীজ বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী-৬২০৫, বাংলাদেশ। বিস্তারিত ...

Leave a Reply