ক্যাটাগরি: নানাবিধ | বিশ্বাস করুন আর নাই করুন!

আপনি কতটা জানেন? প্রসঙ্গ মাছ, কচ্ছপ, তিমি ও লবস্টার

মাছঃ

  • অল্প আলোয় কিংবা প্রবহমান পানিতে রাখলে গোল্ড ফিশের রং ফিকে হয়ে আসে।
  • উষ্ণ পানি অপেক্ষা ঠান্ডা পানিতে গোল্ড ফিশের স্মরণশক্তি ভালো।
  • হাঙর তার তীক্ষ্ণ শ্রবণ শক্তির সাহায্যে অন্য মাছের হৃৎস্পন্দন শুনতে পায়।
  • মেরিন ক্যাট ফিশের শরীরের যেকোনো অংশ দিয়ে কোনো কিছুর স্বাদ নিতে পারে।

কচ্ছপঃ

  • ‘স্নেক-নেক’ কচ্ছপের গলার দৈর্ঘ্য এদের শরীরের প্রায় সমান হয়।
  • ‘লেথারব্যাক’ কচ্ছপ প্রজাতির মধ্যে সবচেয়ে বড় আকারের। গড়পড়তা একেকটির কচ্ছপ প্রায় সাড়ে ছয় ফুট লম্বা হয়।
  • সামুদ্রিক কচ্ছপ তার শরীরে ঢুকে যাওয়া লবণাক্ত পানি চোখ দিয়ে বের করে দেয়।
  • ‘গ্রিন সি’ জাতের কচ্ছপ নিঃশ্বাস গ্রহণ ছাড়াই একনাগাড়ে সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা পানির নিচে থাকতে পারে।
  • ‘ডেজার্ট’ কচ্ছপ সবচেয়ে স্লথ গতির। মিনিটে মাত্র দুই ফুট এগোতে পারে এরা।
  • বিপদ দেখলে ‘গ্রিন’ কচ্ছপ ঘণ্টায় প্রায় ২০ মাইল গতিতে সাঁতার কাটতে পারে।
  • ডিম পাড়ার আগে স্ত্রী-কচ্ছপ একই রকম কয়েকটি নকল গর্ত তৈরি করে নেয়, যাতে শত্রু বিভ্রান্ত হয়।
  • কচ্ছপের ডিম ফুটতে প্রায় দুই মাস লাগে। বাচ্চা ছেলে না মেয়ে হবে, তা নির্ভর করে তাপমাত্রার ওপর।
  • কিছু প্রজাতির কচ্ছপ খাবার না খেয়ে প্রায় এক বছর বেঁচে থাকতে পারে।

তিমিঃ

  • বাচ্চা তিমি প্রতি ঘণ্টায় প্রায় ১০ পাউন্ড করে বাড়ে।
  • কিলার হোয়েলের প্রতি মিনিটে হূত্স্পন্দনের হার পানির নিচে ৩০ বার আর পানির ওপর ৬০ বার।

লবস্টারঃ

  • লবস্টারের একটি চোখ নষ্ট হয়ে গেলে ঐ স্থানে অন্য একটি চোখ গজায়।

তথ্যসূত্রঃ


Visited 218 times, 1 visits today | Have any fisheries relevant question?

Visitors' Opinion

লেখক

প্রফেসর, ফিশারীজ বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী-৬২০৫, বাংলাদেশ। বিস্তারিত …

Leave a Reply