ক্যাটাগরি: নানাবিধ | শব্দকোষ

মাৎস্য শব্দকোষ: প

উন্নয়নকল্পে পাতাটি dictionary.bdfish.org-তে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

আপনার কাঙ্ক্ষিত শব্দ খুঁজতে dictionary.bdfish.org পরির্দশন করুন।

পইকিলোথার্মিক প্রাণী (Poikilothermic animal, Cold-blooded animal or Ectothermic)
শীতল-রক্ত বিশিষ্ট (Poikilothermic বা Cold-blooded) প্রাণী বলতে সেসব প্রাণীদের বোঝায় যাদের দেহের তাপমাত্রা শরীরবৃত্তীয়ভাবে নিয়ন্ত্রিত না হয়ে বাহ্যিক পরিবেশ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে অর্থাৎ দেহের তাপমাত্রা সুনির্দিষ্ট নয়, পরিবেশের তাপমাত্রা বাড়লে দেহের তাপমাত্রা বাড়ে আবার পরিবেশের তাপমাত্রা কমলে দেহের তাপমাত্রা কমে। যেমন- মাছ, ব্যাঙ, কুমির ইত্যাদি।

পাখনা (Fin)
পাখনা হচ্ছে মাছ ও অন্যান্য জলজ প্রাণীর পানিতে চলাচল (যেমন-সাঁতার কাটা) ও ভারসাম্য রক্ষাকারী অঙ্গ। মাছে উপস্থিত হুবহু একই ধরণের এক জোড়া পাখনাকে জোড় পাখনা বলে যেমন- বক্ষ পাখনা ও শ্রোণী পাখনা। অন্যদিক মাছে উপস্থিত এক বা একাধিক সংখ্যক পাখনা যারা হুবহু একই রকম নয় তাদের বিজোড় পাখনা বলা হয়ে থাকে যেমন- পৃষ্ঠ পাখনা, পুচ্ছ পাখনা, পায়ু পাখনা, অঙ্কীয় পাখনা ইত্যাদি। অনেক মাছে দুটি অর্থাৎ এক জোড়া পৃষ্ঠ পাখনা থাকে কিন্তু সেগুলো হুবহু একই রকমের নয় বলে বিজোড় পাখনার অন্তর্ভুক্ত।

পাখি (Bird)
উষ্ণ-রক্ত বিশিষ্ট ডিম পাড়া মেরুদণ্ডী প্রাণী যাদের শরীর পালক দ্বারা আবৃত এবং অগ্রপদ ডানায় রূপান্তরিত হয়েছে তাদেরকে পাখি বলে। পাখির প্রতিশব্দ পক্ষী। যেমন- দোয়েল, কবুতর, ময়ূর, বক ইত্যাদি।

পালক (Father)
পালক শক্ত, হালকা, স্থিতিস্থাপক, অপরিবাহী ও পানি অভেদ্য একটি গঠন যা প্রধান দুটি অংশ নিয়ে গঠিত যথা- দণ্ডের ন্যায় দৃঢ় মধ্যমা যা মধ্য অক্ষ বা স্কেপাস (scapus) এবং পাতার মতো বিস্তৃত অংশ যা ফলক বা ভেন (vane) বা ভেক্সিলাম (vexillum) নামে পরিচিত।

পার্শ্বরেখা অঙ্গ (Lateral line system)
প্রাণীদেহের ত্বকের নীচে অবস্থিত অনেকগুলো খাত (Canal) ও গর্ত (Pits) নিয়ে পার্শ্বরেখা অঙ্গ গঠিত। খাতগুলো ছিদ্রের মাধ্যমে বাহিরের পরিবেশে উন্মুক্ত। যেসব মাছে আঁইশ উপস্থিত সেসব মাছের পার্শ্বরেখা অঙ্গের উপরস্থ আঁইশও ছিদ্রযুক্ত। এই ছিদ্রগুলোই মূলত বাহির থেকে দৃষ্টিগোচর হয় যা পার্শ্বরেখা নামে বিবেচিত। খাতে অনেকগুলো সংবেদগ্রাহী কোষ নিউরোমাস্ট (Neuromast) অবস্থিত যা পানিতে দূরবর্তী কোন প্রাণী বা বস্তুর চলাচলের ফলে সৃষ্ট কম্পাঙ্ক সনাক্ত করতে সক্ষম।

পুচ্ছ পাখনা (Caudal fin)
পুচ্ছ পাখনা হচ্ছে মাছের পশ্চাদদেশে অবস্থিত অন্যতম বেজোড় পাখনা যা চলার সময় সামনের দিকে যাওয়া ও দিক পরিবর্তনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিছু ব্যতিক্রম (যেমন শংকর মাছ, যার লেজ চাবুকের মত গঠন তৈরি করেছে) ছাড়া অধিকাংশ মাছে পুচ্ছ পাখনা উপস্থিত। গঠনের উপর ভিত্তি করে এদের প্রধান তিনটি ধরণ দেখতে পাওয়া যায়। যথা- হেটেরোসার্ক্যাল, ডিফিসার্ক্যাল ও হোমোসার্ক্যাল পুচ্ছ পাখনা।

প্যানক্রিয়াস (Pancreas)
অগ্ন্যাশয় হচ্ছে পাকস্থলীর সন্নিকটে অবস্থিত গুরুত্বপূর্ণ পরিপাক গ্রন্থি যা অ্যাসিনার (Acinar) কোষ এবং আইলেটস অব ল্যাঙ্গারহান্স (Islets of Langerhans) কোষ নিয়ে গঠিত। অ্যাসিনার কোষ বহিঃক্ষরা গ্রন্থি (Exocrine) গঠন করে যা অগ্নাশয় রস নিঃসরণ করে। অন্যদিকে আইলেটস অব ল্যাঙ্গারহান্স কোষ অন্তঃক্ষরা (Endocrine) গ্রন্থি গঠন করে যা ইনসুলিন নিঃসরণ করে।

প্রকৃত সিলোম বিশিষ্ট (Eucoelomate) প্রাণী
অন্যদিকে যেসব প্রাণীদের সিলোম মেসোডার্মের অভ্যন্তর থেকে গহ্বর রূপে উদ্ভূত হয় এবং তাতে প্যারাইটাল আবরণী ও ভিসেরাল আবরণী উপস্থিত থাকে তাদের ইউসিলোমেট (Eucoelomate) বা প্রকৃত সিলোম বিশিষ্ট প্রাণী বলে আর এ ধরণের সিলোমকে ইউসিলোম (Eucoelom) বা প্রকৃত সিলোম বলে। যেমন- অ্যানিলিডা (Annelida), আর্থ্রোপোডা (Arthropoda), মোলাস্কা (Mollusca), একাইনোডার্মাটা (Echinodermata) ও কর্ডাটা (Chordata) পর্বের প্রাণী।

 

এই পাতাটি উন্নয়নকল্পে dictionary.bdfish.org-তে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এর উন্নয়নে অংশ নিতে পারেন আপনিও। আপনার কাঙ্ক্ষিত শব্দটি পাঠিয়ে দিন add-word@bdfish.org ইমেইল ঠিকানায়।

Visitors' Opinion

লেখক

প্রফেসর, ফিশারীজ বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী-৬২০৫, বাংলাদেশ। বিস্তারিত ...

Leave a Reply