ক্যাটাগরি: ইভেন্ট | ভর্তি পরীক্ষা

বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স ও পাস) প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা ২০১২-২০১৩

বি.এস-সি. ফিশারীজ কোর্সে ভর্তি পরীক্ষাসহ ফিশারীজ সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টের খবর প্রতিনিয়ত প্রকাশিত হচ্ছে বিডিফিশের নুতন আয়োজন BdFISH Event এর পাতায়।


বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১২-২০১৩ শিক্ষাবর্ষের বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স ও পাস) কোর্সে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হতে শুরু করেছে। পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ সাপেক্ষে এখানে পর্যায়ক্রমে বিস্তারিত তথ্যাদি উপস্থাপন করা হবে।

 

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিসারিজ অনুষদে বি.এসসি. ফিসারিজ (অনার্স) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। কোর্সটি করতে চাইলে ফিসারিজ অনুষদ -এ ভর্তি হতে হবে। এ অনুষদের আসন সংখ্যা ৭৫। এজন্য এ-ইউনিটের মাধ্যমে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থী ৮ নভেম্বর ২০১২ থেকে ৩০ নভেম্বর ২০১২ তারিখের মধ্যে ভর্তি পরীক্ষার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। এ ইউনিটের আবেদন ফি ৫০০.০০ (পাঁচ শত টাকা মাত্র)। বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তিভর্তি নির্দেশিকাআসন বিন্যাস ও অন্যান্য তথাদি

এ-ইউনিটে আবেদনকারীর ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • ২০১১ ও ২০১২ সালের উচ্চ মাধ্যমিক/সমমানের পরীক্ষায় পাশকৃতরাই শর্ত পূরণ সাপেক্ষে আবেদন করতে পারবে। ২০০৯ সালের পূর্বে মাধ্যমিক/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্র/ছাত্রীরা আবেদনের অযোগ্য।
  • প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড/কারিগরী শিক্ষা বোর্ড থেকে এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় গ্রেড পদ্ধতিতে ৫ এর স্কেলে প্রতিটিতে কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ সহ মোট জিপিএ ৬.৫ থাকতে হবে।  চতুর্থ বিষয়ে ন্যুনতম সি গ্রেড থাকতে হবে। বিদেশী শিক্ষা বোর্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেডে পাশ হতে হবে।
  • এই অনুষদে ভর্তি হতে চাইলে তার উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে পাশকৃত বিষয়গুলো হতে হবে পদার্থ, রসায়ন, জীববিজ্ঞান এবং গণিত/কৃষি বিজ্ঞান।
  • ও এবং এ লেভেল পাশকৃতদের জন্য ও লেভেলে কমপক্ষে পাঁচটি বিষয়ে গড়ে সি গ্রেড এবং এ লেভেলে পদার্থ, রসায়ন, গণিত, জীববিজ্ঞান/কৃষি বিজ্ঞানের মধ্যে তিনটি বিষয়ে কমপক্ষে গড়ে সি গ্রেড পেতে হবে।

এ-ইউনিটের আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • ছাত্র-ছাত্রীদের সদ্য তোলা ২কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান/স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কমিশনার/গেজেটেড অফিসার/বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক কর্তৃক সত্যায়িত করে ভর্তি পরীক্ষার দিন সাথে আনতে হবে। ছবির পিছনে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর এবং নাম লিখে আনতে হবে এবং এই ছবি তার প্রবেশপত্র হিসেবে বিবেচিত হবে। সত্যায়িত ছবি ছাড়া কাউকে ভর্তি পরীক্ষা দিতে দেওয়া হবে না।
  • ও এবং এ লেবেলে উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য শিক্ষাবোর্ডের ডাটাবেজে নেই বলে তাদেরকে আবেদন করার জন্যে প্রথমে info@hstu.ac.bd অথবা হট লাইনে যোগাযোগ করে পরবর্তী নির্দেশ অনুযায়ী আবেদন করতে হবে।
  • প্রশ্নপত্র বাংলায় প্রনয়ন করা হবে। তবে কোন পরীক্ষার্থী যদি ইংরেজীতে প্রশ্নপত্র পেতে চায় তাহলে info@hstu.ac.bd তে ৩০ নভেম্বর ২০১২ তারিখের মধ্যে অবহিত করতে হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষা সম্পূর্ণভাবে বহু নির্বাচনী পদ্ধতিতে (এমসিকিউ) অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।
  • কালো কালির বল পয়েন্ট কলম দিয়ে এমসিকিউ উপযোগী ফরমে প্রশ্নোত্তর করতে হবে। উত্তরপত্র শীটে (এমসিকিউ) বিষয়ের পছন্দত্রুম এবং বিশেষ কোটার জন্য নির্ধারিত বৃত্ত পূরণ করতে হবে।
  • পরীক্ষার বিষয় ও নম্বর: পদার্থ ২৫, রসায়ন ২৫, জীব বিজ্ঞান ২৫, ইংরেজী ২৫, মোট ১০০
  • ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচী: ০৫ জানুয়ারি ২০১৩ শনিবার সকাল ৯:৩০ টা
  • ভর্তি পরীক্ষার নম্বর ও মূল্যায়ন: ২০০ নম্বরের উপর মেধাস্কোর করে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে। তন্মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বর (ভর্তিপরীক্ষা) এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত গ্রেড অনুসারে যথাক্রমে ৪০% ও ৬০% = ১০০ নম্বর (মোট ২০০ নম্বর) থাকবে।

হেল্পলাইন/হটলাইন:
ফোন: ০১৭২৯২৬৬২৪৪-৬ এবং ইমেইল: info@hstu.ac.bd

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সালনা, গাজীপুর
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ অনুষদ থেকে ৪ বছর মেয়াদী (০৮ সেমিষ্টার) বিএস ফিসারিজ (অনার্স) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। আসন সংখ্যা ৩০। টেলিটক মোবাইল ফোন ব্যবহার করে এসএমএস এর মাধ্যমে ১০ অক্টোবর ২০১২ হতে ১৯ ডিসেম্বর ২০১২ (রাত ১২:০০ টা পর্যন্ত) তারিখের মধ্যে আবেদন করা যাবে। ফি: ৫০০ টাকা মাত্র। বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তি

ফিশারিজ বিজ্ঞান অনুষদে ভর্তির জন্য আবেদনের ন্যুনতম যোগ্যতা:

  • বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • বিজ্ঞান গ্রুপে ২০০৯ বা ২০১০ সালে মাধ্যমিক স্কুল সাটিফিকেট (এস.এস.সি) বা সমমানের পরীক্ষায় এবং ২০১১ বা ২০১২ সালে উচ্চ মাধ্যমিক সাটিফিকেট (এইচ.এস.সি) অথবা সমমানের পরীক্ষায় উভয়ক্ষেত্রে জিপিএ ৩.০০ সহ মোট জিপিএ ৭.০০ পেতে হবে।
  • ২০১০ বা ২০১১ সনে উচ্চ মাধ্যমিক সাটিফিকেট (এইচ.এস.সি) অথবা সমমানের পরীক্ষায় পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত, জীববিজ্ঞান ও ইংরেজি বিষয়ের প্রতিটিতে কমপক্ষে গ্রেড বি পেতে হবে।
  • ও লেভেলের চারটি পেপারের প্রতিটিতে কমপক্ষে বি গ্রেড এবং এ লেভেলে পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত, জীববিজ্ঞান ও ইংরেজি বিষয়ের প্রতিটিতে কমপক্ষে গ্রেড বি পেতে হবে।
  • মোট জিপিএ এর ভিত্তিতে আসন সংখ্যার সর্বোচ্চ ১৫ গুন আবেদনকারীকে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে।

ভর্তি পরীক্ষার পদ্ধতি:

  • সাধারণ জ্ঞান, ইংরেজি ও উচ্চ মাধ্যমিক পাঠ্যক্রম অনুযায়ী পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান বিষয়গুলোর উপর বহুনির্বাচনী (MCQ) পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরের ১:০০ ঘন্টার লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষা: ২৯ ডিসেম্বর ২০১২ রোজ শনিবার সকাল ১১:০০ ঘটিকা হতে ১২:০০ ঘটিকা পর্যন্ত এবং ফলাফল প্রকাশ: ঐ দিন সন্ধ্যা ৬:০০ টা

হেল্পলাইন:

  • বিশেষ প্রয়োজনে ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়ে যোগাযোগ: মোবাইল নম্বর-  ০১৫৫২৩২৫৩০৫
  • ওয়েবসাইট: www.bsmrau.edu.bd

 

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী
এ বিশ্ববিদ্যলয়ের ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগ থেকে বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। এ বিভাগের আসন সংখ্যা ৬০টি। এ বিভাগে ভর্তি হতে চাইলে টেলিটক মোবাইল থেকে এসএমএস এর মাধ্যমে A গ্রুপে আবেদন করতে হবে। আবেদনের সময়সীমা: ১ অক্টোবর ২০১২ থেকে ১০ নভেম্বর ২০১২ রাত ১২.০০টা পর্যন্ত। পরীক্ষার ফিস ৫০০ টাকা (ভ্যাটসহ)। বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তি

A গ্রুপের জন্য ভর্তি পরীক্ষার জন্য যোগ্যতা:

  • মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড থেকে ২০০৯ অথবা ২০১০ সালে বিজ্ঞান বিভাগে অনুষ্ঠিত SSC বা সমমান এবং ২০১১ অথবা ২০১২ সালে বিজ্ঞান বিভাগে অনুষ্ঠিত HSC বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের আবেদন করতে পারবে।
  • আবেদন করার জন্য SSC বা সমমান পরীক্ষায় GPA ৩.৫ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.৫ থাকতে হবে। তবে HSC বা সমমান পরীক্ষায় কোন বিষয়ে ছাত্রছাত্রীর C গ্রেড এর নিচে থাকলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।
  • GCE ‘O’ লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞানসহ পাঁচটি বিষয়ে এবং A লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান এর মধ্যে যে কোন দু’টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে O লেভেল এবং A লেভেলের কোন বিষয়ে C গ্রেড এর নিচে থাকলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।
  • ২০০৯ সালের পূর্বে SSC বা সমমান বা GCE O লেভেল বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা আবেদন করতে পারবে না।
  • A গ্রুপের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের জন্য HSC তে গণিত থাকা অত্যাবশ্যক।
  • বিদেশী ছাত্রছাত্রীরা সরাসরি আবেদন করতে পারবে; তবে আবেদনের সাথে প্রদত্ত সার্টিফিকেটগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের Equivalence Committee কর্তৃক অনুমোদনসাপেক্ষে তারা ভর্তির যোগ্য বলে গণ্য হবে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় সরকারী অনুমোদন লাভের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

A গ্রুপের আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • আবেদনকৃত শিক্ষার্থীকে ভর্তি পরীক্ষার দিন HSC বা সমমান এর মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ডের দুই কপি সত্যায়িত ফটোকপি এবং দুই কপি রঙিন পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি, ছবির পেছনে পরীক্ষার্থীর নাম, SMS এর মাধ্যমে প্রাপ্ত রোল নম্বর বাংলা ও ইংরেজিতে লিখে উক্ত ছবি দু্‌ইটির প্রত্যেকটিতে পৃথকভাবে ফটোকপিকৃত রেজিস্ট্রেশন কার্ডের বাম দিকে উপরে স্টাপলার পিন দিয়ে সংযুক্ত করে অবশ্যই সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ফটোকপির উপরের অংশে উক্ত রোল নম্বর বাংলা ও ইংরেজিতে লিখতে হবে।
  • A গ্রুপের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ: ১৪ ডিসেম্বর ২০১২ সকাল ১১:৩০-১২.৩০টা এবং ফলাফল প্রকাশের তারিখ: ১৬ ডিসেম্বর ২০১২
  • ভর্তি পরীক্ষা MCQ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। A গ্রুপের জন্য বাংলা ও ইংরেজী, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত এবং জীববিজ্ঞান বিষয়ের উপর প্রত্যেকটিতে ২৫ করে ১২৫টি প্রশ্ন থাকবে। পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও গণিত প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর জন্য অত্যাবশ্যক। বাংলা ও ইংরেজী এবং জীববিজ্ঞান হতে যে কোন একটির উত্তর দিতে হবে। ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগের ক্ষেত্রে জীববিজ্ঞান আবশ্যক।
  • মোট নম্বর হবে ১০০ এবং পরীক্ষার পাশ নম্বর ৪০।
  • মেধা তালিকা তৈরি করা হবে ২০০ নম্বরের ভিত্তিতে; মাধ্যমিক: সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত বা হিসাবকৃত, ৪র্থ বিষয়সহ, GPA এর ৮ গুণ উচ্চ মাধ্যমিক: সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত বা হিসাবকৃত, ৪র্থ বিষয়সহ, GPA এর ১২ গুণ, এবং ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর।
  • পছন্দের বিষয় হিসেবে ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগ রাখতে চাইলে তাকে উচ্চমাধ্যমিক/সমমান/ A লেভেলে অধীত বিষয় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান হতে হবে।

হেল্পলাইন:

  • বিশেষ প্রয়োজনে ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়ে যোগাযোগ: সচিব, ভর্তি কমিটি, মোবাইল নম্বর- ০১৮১৯৮৩৪৩৯৩ অথবা ০১৭১১২৮৪৯১০ কিংবা info@nstu.edu.bd এ যোগাযোগ করা যাবে।

 

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়:
এ বিশ্ববিদ্যালয়ের  ফিশারীজ এন্ড মেরিন বায়োসায়েন্স বিভাগ থেকে বি.এস-সি. (অনার্স)  কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। কোর্সটি করতে চাইলে ফিশারীজ এন্ড মেরিন বায়োসায়েন্স বিভাগ-এ ভর্তি হতে হবে। এ বিভাগে আসন সংখ্যা ৪০। এজন্য বি-ইউনিটে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থী ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১২ ইং থেকে ১০ অক্টোবর, ২০১২ ইং পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। বি ইউনিটের আবেদন ফি ৫০০ টাকা (সার্ভিস চার্জসহ)। বিস্তারিত: ভর্তি নির্দেশিকা

বি-ইউনিটে আবেদনকারীর ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • ২০১১ এবং ২০১২ইং সালের উচ্চ মাধ্যমিক/সমমানের পরীক্ষায় বিজ্ঞান/কৃষিবিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশকৃত ছাত্র-ছাত্রীরাই শর্ত পূরণ সাপেক্ষে আবেদন করতে পারবে।
  • প্রার্থীদের বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড/কারিগরী শিক্ষা বোর্ড থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/ সমমান পরীক্ষায় গ্রেড পদ্ধতিতে ৫.০০ এর স্কেলে প্রতিটিতে চতুর্থবিষয়সহ কমপক্ষে জিপিএ ৩.৫ সহ মোট জিপিএ ৭.৫ থাকতে হবে। বিদেশী শিক্ষা বোর্ড থেকে সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে সমতুল্য গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে।
  • ও এবং এ লেভেল পাশকৃতদের জন্য ও লেভেলে কমপক্ষে পাঁচটি বিষয়ে গড়ে বি গ্রেড এবং এ লেভেলে তিনটি বিষয়ে গড়ে বি গ্রেড থাকতে হবে।

বি-ইউনিটের আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • ২০১০ইং সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান ও রসায়নে যে পাঠ্যসূচী ছিল প্রধানত তার উপর এবং Functional English এর উপর ভিত্তি করে সর্বমোট ৮০ নম্বরের (MCQ) পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেয়া হবে। পরীক্ষায় প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ২৫% নম্বর কাটা যাবে।
  • মোট ৮০ নম্বরের মধ্যে পদার্থ ২০ নম্বর, রসায়ন ২৫ নম্বর, জীববিজ্ঞান ২৫ নম্বর এবং ইংরেজীতে ১০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।
  • এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের উপর ২০ (১০+১০) নম্বর। এই মোট ১০০ নম্বরের উপর ভিত্তি করে মেধাস্কোর তৈরি করা হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও সময়: ১৭/১১/২০১২ দূপুর ০২:৩০-০৩:৩০

হেল্পলাইন:

  • ০১৫৫২২০০৫৫৩, ০১৫৫২২০০৫৫৪, ০১৫৫২২০০৫৫৯

 

মেরিন ফিশারিজ একাডেমি:
মেরিন ফিশারিজ একাডেমি,  চট্টগ্রাম থেকে তিন বছর মেয়াদী বিএস-সি (পাস) ইন মেরিন ফিশারিজ কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। কোর্সটি করতে চাইলে মেরিন ফিশারিজ একাডেমিতে ক্যাডেট হিসেবে ভর্তি হতে হবে। এজন্য ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থী ০৫ অক্টোবর, ২০১২ ইং তারিখের মধ্যে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। আবেদন ফি ৫৫০টাকা (ভ্যাটসহ)। বিস্তারিত: বিজ্ঞপ্তি | অন্যান্য তথ্যাদি

বিএস-সি (পাস) ইন মেরিন ফিশারিজ কোর্সে ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • মাধ্যমিক (বিজ্ঞান) বা ও লেভেল (জীববিদ্যা ও রসায়নসহ) বা সমমান এবং উচ্চ মাধ্যমিক (বিজ্ঞান) বা এ লেভেল (জীববিদ্যা ও রসায়নসহ) বা সমমানের পরীক্ষাসমূহে ন্যূনতম জিপিএ ২.৫০ বা ‘সি’ গ্রেড থাকতে হবে। উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় অবশ্যই জীববিদ্যা থাকতে হবে।
  • বয়স: ৩১ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে সর্বোচ্চ ২১ বৎসর।
  • শারীরিক মান (ন্যূনতম): উত্তম শারীরিক গঠন ও সুস্বাস্থ্য। সর্বনিম্ন উচ্চতা ১৬২.৫ সে.মি. (পুরুষ) এবং ১৫৫ সে.মি. (মহিলা)। ওজন উচ্চতা অনুযায়ী হবে। দৃষ্টিশক্তি ৬/৬, স্বাভাবিক কালার ভিশন।
  • সাঁতার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • অবিবাহিত মহিলা ও পুরুষ এবং বাংলাদেশের নাগরিক।

ভর্তি পরীক্ষার নিয়মাবলী:

  • নির্বাচনী লিখিত পারীক্ষার তারিখ ও সময়: ১২ অক্টোবর ২০১২ তারিখ শুক্রবার সকাল ৯:০০টা।
  • ইংরেজী ও সাধারণ জ্ঞান, পদার্থবিদ্যা এবং রসায়ন এই তিনটি বিষয়ের প্রতিটিতে ৮০ নম্বর করে মোট ২৪০ নম্বর এবং ২ ঘণ্টা ৩০ মিনিট সময়ের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
  • লিখিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র এমসিকিউ ৬০% এবং বর্ণনামূলক ৪০% হবে। উত্তীর্ণ প্রার্থীদের পর্যায়ক্রমে সাঁতার, স্বাস্থ্য, চক্ষু ও বিশেষ রং দর্শন পরীক্ষা এবং মৌখিক পরীক্ষার জন্য আহবান করা হবে।
  • মৌখিক পরীক্ষার সময় পরীক্ষা কমিটিকে প্রার্থীর পছন্দের বিভাগ অবহিত করতে হবে এবং পরবর্তীতে চূড়ান্ত ফলাফল অনুযায়ী মেধানুক্রম, প্রার্থীর উপযুক্ততা ও পছন্দের ভিত্তিতে তার বিভাগ নির্বাচন করা হবে।

হেল্পলাইন:

  • ০১৫৫৭৬৩৬৮৫৭ (বন্ধের দিন ব্যতীত সকাল ৮টা থেকে বিকাল ১৪:৩০টা পর্যন্ত)

 

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়:
এ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদ থেকে বি.এস-সি. ফিশারিজ (অনার্স) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। কোর্সটি করতে চাইলে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদে ভর্তি হতে হবে। মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদে আসন সংখ্যা ৫০। এজন্য এ-ইউনিটে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থী ০৭/৯/২০১২ খ্রি: তারিখ থেকে ১৫/১১/২০১১ খ্রি: বিকাল ৪.৩০মি: পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। এ-ইউনিটের আবেদন ফি ৫০০.০০ টাকা এবং ভর্তি সহায়িকা মূল্য বাবদ ১০০.০০ টাকাসহ মোট ৬০০.০০ (ছয়শত) টাকা । বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তিঅন্যান্য তথ্যাদি

এ-ইউনিটে আবেদনকারীর ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • প্রার্থীকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • যে সকল ছাত্রছাত্রী ২০০৯/২০১০ সালে এসএসসি বা সমমান এবং ২০১১/২০১২ সালে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে, কেবলমাত্র তারাই আবেদন করতে পারবে।
  • আবেদনকারীর অবশ্যই এসএসসি বা সমমানের এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উভয় ক্ষেত্রে চতুর্থ বিষয় বাদে প্রতিটিতে ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ সহ সর্বমোট জিপিএ ৬.০ থাকতে হবে।
  • বিজ্ঞান গ্রুপ থেকে এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। প্রার্থীকে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় অবশ্যই তার পঠিত পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত এবং জীববিদ্যা সহ সকল বিষয়ের প্রতিটিতে ন্যূনতম জিপি ২.০ থাকতে হবে।
  • জিইসি/ও লেভেল এবং এ লেভেল প্রার্থীদের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের জন্য জিইসি/ও লেভেল পরীক্ষায় কমপক্ষে ৫টি বিষয়ে গড়ে বি গ্রেড এবং এ লেভেল পরীক্ষায় কমপক্ষে ৩টি বিষয়ে গড়ে বি গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে।

এ-ইউনিটের আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • ভর্তি পরীক্ষার দিনে আবেদনকারীকে টেলিটক প্রদত্ত রোল নম্বরসহ দুই কপি সত্যায়িত ছবি ও তার এইচএসসি পরীক্ষার মূল প্রবেশপত্র ছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে না।
  • উত্তরপত্রে তাদের ভর্তির বিষয় পছন্দের ক্রমানুসারে (১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ, ৫ম) উত্তরপত্রের (ওএমআর সিটের) নির্দিষ্ট অংশে ভরাট হবে।
  • মেধাস্কোর নির্ধারণে মোট নম্বর: ২০০। তার মধ্যে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা হবে। অবশিষ্ট ১০০ নম্বর এসএসসি জিপিএ কে ৪০ এবং এইচএসসি জিপিএ কে ৬০ বিবেচনা করে অর্থাৎ এসএসসি জিপিএ এর ৮ গুণ এবং এইচএসসি জিপিএ এর ১২ গুণ নম্বর যোগ করে মেধা তালিকা প্রস্তুত করা হবে।
  • পরীক্ষা পদ্ধতি: এমসিকিউ, নম্বর বণ্টন: পদার্থবিদ্যা-২০, রসায়ন-২০, জীববিদ্যা-২০, গণিত-১৫, ইংরেজী-১৫ এবং সাধারণ জ্ঞান-১০।
  • পরীক্ষার সময় : ১ ঘণ্টা, উত্তরপত্র মূল্যায়ন পদ্ধতি: অপটিক্যাল মার্ক রিডার (ওএমআর)।
  • ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল মেধা তালিকার ভিত্তিতে প্রকাশ করা হবে। চূড়ান্ত তালিকা আবেদনকারীর মেধাক্রম ও পছন্দক্রম অনুসারে করা হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও সময় : ০১/১২/২০১২ খ্রি: সকাল ১০:০০ থেকে ১১:০০ টা পর্যন্ত
  • ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ : ০৩/১২/২০১১

হেল্প লাইন (অফিস চলাকালীন সময়):

  • আহবায়ক, ভর্তি পরীক্ষা কমিটি টেলিফোন নম্বর : ০১৭১২০৬৬৪৮৩
  • সদস্য-সচিব, ভর্তি পরীক্ষা কমিটি টেলিফোন নম্বর : ০১৫৫৪৩৪৪৯৯০

 

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়:
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ থেকে ০৮ সিমেস্টার (০৪ বছর) মেয়াদী বি.এসসি. ফিশারিজ (অনার্স) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের আসন সংখ্যা ৬টি সংরক্ষিত আসনসহ মোট ১১১টি। এখানে উক্ত কোর্সটি করতে চাইলে মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদে ভর্তি হতে হবে। এ জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে ০২ সেপ্টেম্বর ২০১২ সকাল ৯:৩০ মিনিট হতে ০১ অক্টোবর ২০১২ তারিখ বিকাল ৪:৩০ মিনিটের মধ্যে। আবেদনের জন্য ৮০০ টাকা (সার্ভিস চার্জসহ) প্রদান করতে হবে। বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তি | ভর্তি নির্দেশিকা | অন্যান্য তথ্যাদি

ভর্তি ইচ্ছুক ছাত্র-ছাত্রীদের প্রয়োজনীয় ন্যূনতম যোগ্যতা নিম্নরূপ :

  • ২০০৯ বা ২০১০ সালে এসএসসি/সমমান এবং ২০১২ সালে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান গ্রুপ থেকে পাশ করতে হবে।
  • এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয় বাদে সমষ্টিগতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৭.০ এবং আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৩.০ পেতে হবে।
  • এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় পদার্থ, রসায়ন, গণিত (এসএসসি এর ক্ষেত্রে উচ্চতর গণিত) এবং জীববিদ্যা আলাদা বিষয় হিসেবে থাকতে হবে। এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় পদার্থ, রসায়ন গণিত, জীববিদ্যা এবং ইংরেজি প্রত্যেকটি বিষয়ে আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপি ২.০ থাকতে হবে।

লিখিত নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য বাছাই:

  • প্রয়োজনীয় শর্তাবলি পূরণকারী প্রার্থীদের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট ও উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষায় (অথবা সমমানের পরীক্ষায়) ফলাফলের (৪র্থ বিষয় ব্যতিত) ভিত্তিতে প্রাথমিক বাছাই করা হবে। নির্ধারিত আসন সংখ্যার অনধিক ১০ গুন প্রার্থীকে লিখিত নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট, টেলিটক ওয়েবসাইট ও SMS এর মাধ্যমে ১৫ অক্টোবর ২০১২ এর মধ্যে প্রকাশ করা হবে।
  • যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশের পর থেকে ৩০ অক্টোবরের ২০১২ এর মধ্যে তাদের ছবি আপলোড ও প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে।

লিখিত নির্বাচনী পরীক্ষার নিয়মাবলি:

  • সকল অনুষদের জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে আগামী ১০ নভেম্বর ২০১২, শনিবার, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে সকাল ১১.০০ বেলা হতে ১২.০০ টা পর্যন্ত লিখিত নির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
  • উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠক্রম অনুসরণে পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত ও জীববিদ্যা বিষয়ে এমসিকিউ পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরের নির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পাশ নম্বর ন্যূনতম ৩০। ফলাফল প্রকাশ ১৪ নভেম্বর ২০১২।
  • মেধাস্কোর: মোট ২০০ নম্বরের ভিত্তিতে মেধাস্কোর নিরূপণ করা হবে। লিখিত নির্বাচনী পরীক্ষার জন্য ১০০ নম্বর এবং বাকি ১০০ নম্বরের জন্য এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল হতে ৪০ নম্বর এবং এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল হতে ৬০ নম্বর ধরা হবে। এস এস সি ও এইচ এস সি পরীক্ষায় ৪র্থ বিষয় ব্যতিত প্রাপ্ত জিপিএ-র যথাক্রমে ৮ ও ১২ গুণ এবং লিখিত নির্বাচনী পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে চূড়ান্ত মেধাস্কোর নিরূপণ করা হবে।

হেল্পলাইন:

  • প্রফেসর ডঃ মোঃ আবুল খায়ের, ডীন, কৃষি প্রকৌশল ও কারিগরি অনুষদ এবং আহ্বায়ক, ভর্তি পরীক্ষা কমিটি। ফোন নম্বর : ০৯১-৬৭৪২৭, ০৯১-৬৭৪১৪, ০৯১-৬৭৪০১ এক্সঃ ২৮০০
  • ভর্তি তথ্য সেল: ফোন : ০৯১-৬৭৪০১ থেকে ০৬, এক্সঃ ২১১০, ২১২৪ ও ২১৩০, মোবাইল ০১৫৫৫ ৫৫৫ ১৪৫, ০১৫৫৫ ৫৫৫ ১৪৬, E-mail: admission@bau.edu.bd

 

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়:
প্রথমবারের মত চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় চার বছর মেয়াদি বি.এসসি (সম্মান) ইন ফিশারিজ কোর্সে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে কোর্সটি করতে চাইলে তাকে ফিশারিজ অনুষদে ভর্তির জন্য ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১২ হতে ৩১ অক্টোবর ২০১২ এর মধ্যে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। উক্ত অনুষদে মোট আসন ১০০টি। ভর্তি পরীক্ষার ফি ৮০০.০০/- (আটশত) টাকা। বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তি | অন্যান্যতথ্যাদি

ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীদের ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • আবেদনকারীকে বাংলাদেশের স্থায়ী নাগরিক হতে হবে।
  • বিজ্ঞান গ্রুপে প্রার্থীর এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৬.৫ (৪র্থ বিষয় ব্যতীত) থাকতে হবে। তবে পরীক্ষাদ্বয়ের যে কোন একটি পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩.০ থাকতে হবে (৪র্থ বিষয় ব্যতীত)।
  • মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) এবং উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) বা সমমানের পরীৰায় পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত, জীববিদ্যা ও ইংরেজি বিষয়সমূহের প্রত্যেকটিতে আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপি ২.০ থাকতে হবে।
  • যে সকল প্রার্থী ২০০৯ সালের পূর্বে এসএসসি/সমমান এবং ২০১১ সালের পূর্বে এইচএসসি/সমমান পরীৰায় উত্তীর্ণ হয়েছে, সে সকল প্রার্থী আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না।

ভর্তির জন্য চূড়ান্ত প্রার্থী নির্বাচন:

  • ভর্তির জন্য মূল্যায়নের মোট নম্বর- ২০০
  • এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার ফলাফল- ১০০ নম্বর। এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ -এর ৮ গুণঃ ৪০ নম্বর, এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ -এর ১২ গুণঃ ৬০ নম্বর
  • লিখিত পরীক্ষার নম্বর: ১০০, সময়: ১ (এক) ঘন্টা, প্রশ্নোত্তরের পদ্ধতি: এমসিকিউ, পরীক্ষার বিষয় ও নম্বরঃ পদার্থবিদ্যা-২০, রসায়ন-২০, গণিত-২০, জীববিদ্যা-৩০, ইংরেজি-১০

গুরুত্বপূর্ণ সময়সূচী ও অন্যান্য তথ্যাদি:

  • ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও স্থান ২৯ নভেম্বর ২০১২ বৃহস্পতিবার সকাল ১০:০০ ঘটিকা, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস
  • ফলাফল প্রকাশ ২৯ নভেম্বর ২০১২ বৃহস্পতিবার বিকাল ০৫:০০ ঘটিকার পর
  • মেধা তালিকা হতে ভর্তি ১১-১২ ডিসেম্বর ২০১২
  • অপেৰমান তালিকা হতে ভর্তি ১৩ ডিসেম্বর ২০১২
  • ক্লাশ শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১২
  • ফলাফল প্রকাশের পর ভর্তির সময় সকল সনদপত্র ও প্রমাণপত্রাদির মূলকপি এ বিশ্ববিদ্যালয়ে অবশ্যই জমা রাখতে হবে।

 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়:
এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বি.এস-সি. (অনার্স) ইন মেরিন সায়েন্স, বি.এস-সি. (অনার্স) ইন ওশানোগ্রাফী এবং বি.এস-সি. (অনার্স) ইন ফিশারিজ কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। কোর্সগুলো করতে চাইলে ইন্সটিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ –এ ভর্তি হতে হবে। এজন্য জি-ইউনিটে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থী ০১ সেপ্টেম্বর থেকে ০৫ অক্টোবর ২০১২ পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার জন্য এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। আবেদন ফি ৪০০ টাকা (সার্ভিস চার্জ প্রযোজ্য)। বিস্তারিত: বিজ্ঞপ্তি | ভর্তি নির্দেশিকা | অন্যান্য তথ্যাদি

জি-ইউনিটে আবেদনকারীর ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • যে সকল ছাত্র-ছাত্রী ২০০৮ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে মাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষা এবং ২০১১ ও ২০১২ সালে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে।
  • মাধ্যমিক বা সমমান এবং বিজ্ঞান/কৃষি বিজ্ঞান শাখায় উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় ছাড়া মোট জিপিএ ৭.০০ তবে কোন পরীক্ষায় জিপিএ ৩.০০ এর নীচে নয়।
  • উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় জীব বিজ্ঞান/কৃষি বিজ্ঞান এবং গণিত/পরিসংখ্যান বিষয় নিয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে এবং উল্লিখিত বিষয় সমূহে আলাদা-আলাদা ভাবে কমপক্ষে ‘সি’ গ্রেড পেতে হবে।
  • যে সকল ছাত্র-ছাত্রী ২০০৮ সালে বা তৎপরবর্তী সালে জি.সি.ই. ‘ও’ লেভেল পরীক্ষায় ন্যূনতম ২টি বিষয়ে বি গ্রেড এবং ৩টি বিষয়ে সি-গ্রেড পেয়ে ২০১১ বা ২০১২ সালে বিজ্ঞান/কৃষিবিজ্ঞান শাখায় জি.সি.ই. ‘এ’ লেভেল পরীক্ষায় ন্যূনতম ১টি বিষয়ে বি-গ্রেড ও ২টি বিষয়ে সি-গ্রেড পেয়েছে।

জি-ইউনিটের আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • ভর্তি পরীক্ষার তারিখ: ১২ নভেম্বর ২০১১, দুপুড় ২টা ৩০ মিনিট
  • ভর্তি পরীক্ষা এক ঘন্টা ব্যাপী একশত নম্বরের এমসিকিউ পদ্ধতিতে গ্রহণ করা হবে। মোট প্রাপ্ত নম্বর থেকে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কর্তন করা হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষার সময় প্রার্থীর ০৩ কপি পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি, এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষার মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড অথবা A এবং O লেভেলের Statement of Entry এর মূলকপি এবং চবি ওয়েব সাইট থেকে আগেই ডাউনলোড করা প্রবেশপত্র পরীক্ষার হলে নিয়ে আসতে হবে।
  • পরীক্ষার তারিখ, সময়, কেন্দ্রের নাম, ভবনের নাম, হল কক্ষ নং, ফ্লোর নম্বর ইত্যাদি যাবতীয় তথ্যসহ সিট প্লান এবং ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রার্থীদের নিজ দায়িত্বে জেনে নিতে হবে।
  • বাংলা, পদার্থবিদ্যা, গণিত ও সাধারণ জ্ঞানের প্রতিটি বিষয়ে ১০ নম্বর এবং ইংরেজি, প্রাণিবিদ্যা, উদ্ভিদ বিজ্ঞান ও রসায়নের প্রতিটি বিষয়ে ১৫ নম্বর করে মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
  • ভর্তিপ্রার্থীকে ভর্তি পরীক্ষায় বাংলা, পদার্থবিদ্যা, গণিত ও সাধারণ জ্ঞানের প্রতিটি বিষয়ে ন্যূনতম ৩ নম্বর এবং ইংরেজি, উদ্ভিদ বিজ্ঞান, প্রাণিবিদ্যা ও রসায়ন প্রতিটি বিষয়ে ন্যুনতম ৪ নম্বর পেতে হবে ।

হেল্প লাইন:

  • ফোন: 01555555141 (সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত)
  • ইমেইল: dracademiccu@yahoo.com

 

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে জীববিজ্ঞান স্কুলের অধীনে ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিনে ৪ বছর মেয়াদী বি.এস-সি. ফিশারীজ (সম্মান) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। এ ডিসিপ্লিনে আসন সংখ্যা ৪৫টি। অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। আবেদন শুরু ০৪/০৯/২০১২ ও আবেদন শেষ ২৭/০৯/২০১২। জীববিজ্ঞান স্কুলে ভর্তির আবেদনের জন্য ৬০০ টাকা ফি জমা দিতে হবে। বিস্তারিত: সাধারণত তথ্যাদি | ভর্তি বিজ্ঞপ্তি | জীববিজ্ঞান স্কুলের ভর্তির নির্দেশিকা | এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনের পদ্ধতি | প্রবেশপত্র তৈরির পদ্ধতি

আবেদন করার যোগ্যতা:

  • প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • প্রাথীকে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় গ্রেড পদ্ধতিতে ৫.০০ এর স্কেলে কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ এবং ২০১১-২০১২ সালের এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ সহ সর্বমোট জিপিএ ৭.০০ পেতে হবে।
  • GCE O-Level এবং A -Level -এ উত্তীর্ণ প্রার্থীদের O-Level পরীক্ষায় পাঁচটি বিষয়ে গড়ে B গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে এবং A -Level পরীক্ষায় জীববিজ্ঞান, রসায়ন, পদার্থ বিজ্ঞান, গণিত ও ইংরেজী বিষয়ে গড়ে B গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে।

পরীক্ষার বিষয়, নম্বর বন্টন, সময় ও বিষয়ভিত্তিক পাশ নম্বর:

  • ভর্তি পরীক্ষার বিষয় ও নম্বর বন্টন: জীববিজ্ঞান ২৫, রসায়ন ২০, পদার্থ বিজ্ঞান ২০, ইংরেজী ২০, গণিত ১৫, সর্বমোট নম্বর ১০০।
  • প্রশ্নের ধরন ও সময়: এমসিকিউ ও ১ ঘন্টা।
  • পাশ নম্বর: জীববিজ্ঞান ১২, রসায়ন ৯, পদার্থ বিজ্ঞান ৯, ইংরেজী ৯, গণিত ৬
  • সমান মোট নম্বরপ্রাপ্ত পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে যাথাক্রমে জীববিজ্ঞান, রসায়ন, পদার্থ বিজ্ঞান, ইংরেজী ও গণিত বিষয়ে প্রাপ্ত
  • নম্বরের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে মেধাক্রম নির্ধারণ করা হবে।

ভর্তি পরীক্ষা, ফলাফল প্রকাশ ও ভর্তি সংক্রান্ত তারিখ ও সময়সূচী:

  • যোগ্য প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ ০৪ অক্টোবর ২০১২
  • ভর্তি পরীক্ষা ১১ অক্টোবর ২০১২ সকাল ১০টা থেকে ১১টা
  • ফলাফল প্রকাশ ১৬ অক্টোবর ২০১২
  • মেধা তালিকা থেকে ভর্তি ১২ নভেম্বর ২০১২ সকাল ১০টা থেকে বিকাল ০৪টা

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়:
এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স) কোর্স করতে চাইলে জীববিজ্ঞান অনুষদের অধীনে মৎস্যবিজ্ঞান বিষয়ে ভর্তি হতে হবে। এজন্য ক-ইউনিটে ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন পত্র জমা দিতে হবে। ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থীকে ২৬ আগষ্ট ২০১২ থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১২ তারিখের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করে টাকা জমাদানের রশিদ তথা পে-ইন-স্লিপ Download করতে হবে। পে-ইন-স্লিপ Download করার পর ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১২ তারিখের মধ্যে অবশ্যই বাংলাদেশস্থ সোনালী, অগ্রণী, জনতা ও রূপালী ব্যাংকের যেকোন শাখায় মোট ৩৫০ টাকা জমা দিতে হবে। আবেদনকারীকে অবশ্যই ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ তারিখের মধ্যে ছবি আপলোড করে তার আবেদন সম্পন্ন করতে হবে। বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তি | সাধারণ নির্দেশিকা | ক-ইউনিট সম্পর্কিত তথ্যাদি |

ক-ইউনিটে আবেদনকারীর ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • প্রার্থীকে ২০০৭ বা তদূর্ধ সালে মাধ্যমিক অথবা /মাদ্রাসাবোর্ডের দাখিল শাখায় / সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • প্রার্থীকে বিজ্ঞান/কৃষিবিজ্ঞান শাখা থেকে ২০১০ বা ২০১১ সালে উচ্চমাধ্যমিক অথবা /মাদ্রাসাবোর্ডের বিজ্ঞান শাখায় আলীম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক (বা সমমানের) পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়ের নম্বর বাদে সর্বমোট অর্জিত জিপিএ কমপক্ষে ৮.০ থাকতে হবে।
  • মাধ্যমিক / উচ্চমাধ্যমিকের যেকোন একটিতে বা উভয় পর্যায়ে যদি GCE-O/A Level অথবা সমমানের বিদেশী ডিগ্রীধারী হলে তাদের GCE-O/A Level অথবা বিদেশী ডিগ্রীর মার্কসসমূহ সমতা নিরূপন (Equivalence) করার পর Equivalence ID ব্যবহার করে সাধারণভাবে apply করতে পারবে। Equivalence করার জন্য স্ব স্ব ইউনিটে তাদের মার্কশীট সমূহের ফটোকপিসহ আবেদন করতে হবে এবং সমতা নিরূপন ফি প্রদান করতে হবে। সমতা নিরূপনের পর ছাত্র/ছাত্রীকে একটি সমতা নিরূপন সনদপত্র প্রদান করা হবে এবং উক্ত সনদপত্রে Equivalence ID উল্লেখ থাকবে।

ক-ইউনিটের আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • মৎস্যবিজ্ঞানে আসন সংখ্যা-৩০।
  • মৎস্যবিজ্ঞানে ভর্তি হতে চাইলে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে নূন্যতম ‘বি’ গ্রেড এবং ভর্তি পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে নূন্যতম ১২ নম্বর পেতে হবে।
  • ক-ইউনিটের পরীক্ষার তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১২ শুক্রবার সকাল ১০টা। পরীক্ষার সময় ১ ঘন্টা ৪৫ মিনিট।
  • ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্যসূচী অনুযায়ী হবে। প্রার্থীকে ৪টি বিষয়ের উপর মোট ১২০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। পদার্থবিজ্ঞান, রাসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান বিষয়ের প্রতিটিতে ৩০ করে মোট ১২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। এর মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পর্যায়ে কোন ১টি বিষয় প্রার্থীর ৪র্থ বিষয় হলে সেক্ষেত্রে বাংলা বা ইংরেজি বিষয়ে উত্তর দিতে পারবে। উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পর্যায়ে কোন বিষয় না পড়ে থাকলে (সর্বোচ্চ ২টি) সেক্ষেত্রে বাংলা এবং/অথবা ইংরেজি বিষয়ে উত্তর দিতে পারবে। একজন প্রার্থী যে চারটি বিষয়ে পরীক্ষা দেবে তার উপর নির্ভর করবে সে কোন বিষয়ে ভর্তি হতে পারবে।
  • এমসিকিউ পদ্ধতি অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।
  • ভর্তি পরীক্ষার পাস নম্বর ৪৮। মেধাস্কোর নির্ণয়ে মোট ২০০ নম্বর থাকবে। যার মধ্যে ১২০ নম্বর ভর্তি পরীক্ষা থেকে (অগ্রাধিকার ভিত্তিতে) এবং ৮০ নম্বর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অর্জিত জিপিএ (৪র্থ বিষয় বাদে) থেকে যোগ হবে। ভর্তি পরীক্ষায় পাশ না করলে তার মেধাস্কোর তৈরি করা হবে না।

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়:
এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স) কোর্স করতে চাইলে কৃষি অনুষদের অধীনে ফিশারীজ বিভাগে ভর্তি হতে হবে। এজন্য জি-ইউনিটে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থী ০১ সেপ্টেম্বর ২০১২ রাত ১২:০১ টা থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১২ তারিখ রাত ১২:০০ টা পর্যন্ত এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। জি ইউনিটে আবেদন ফি ৪৪০ টাকা। ফিশারীজ বিভাগে আসন ৪০টি।  বিস্তারিত: ভর্তি বিজ্ঞপ্তি | বিশেষ শর্তাবলী | ভর্তি পরীক্ষার তারিখ | হেল্পলাইন

জি-ইউনিটে আবেদনকারীর ন্যূনতম যোগ্যতা

  • ২০০৭, ২০০৮, ২০০৯ ও ২০১০ সালে এস.এস.সি বা সমমান এবং ২০১১ ও ২০১২ সালে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচ.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীরাই কেবল ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে। সনাতন পদ্ধতিতে ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে না।
  • বিজ্ঞান শাখা থেকে উত্তীর্ণ ছাত্র/ছাত্রীদের এস.এস.সি/সমমান ও এইচ.এস.সি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৮.৫০ পেতে হবে
  • এইচ.এস.সি পর্যায়ের জীববিজ্ঞান/কৃষিশিক্ষায় নূন্যতম জিপি ২ পেতে হবে।

জি-ইউনিটের আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • ভর্তি পরীক্ষার তারিখ: ০৮ অক্টোবর ২০১২ সোমবার, দুপুর ০৪টা থেকে ০৫টা
  • এমসিকিউ পদ্ধতিতে এইচ.এস.সি পর্যায়ের জীববিজ্ঞান, রসায়ন ও ইংরেজি বিষয়ে মোট ৬০ নম্বরের প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করা হবে।
  • মোট ১০০ নম্বরের ভিত্তিতে মেধাস্কোর তৈরি করা হবে। যার মধ্যে ৬০ নম্বর ভর্তি পরীক্ষা থেকে এবং ৪০ নম্বর এস.এস.সি ও এইচ.এস.সিতে প্রাপ্ত জিপিএ থেকে সমন্বয় করা হবে।

পরীক্ষার হলে যা আনতে হবে:

  • এইচ.এস.সি/সমমান পরীক্ষার মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড।
  • এইচ.এস.সি/সমমান পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ২টি ফটোকপি যার উপরের ফাঁকা জায়গায় ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখা থাকতে হবে এবং প্রতিটি কপির সঙ্গে পরীক্ষার্থীর একটি সাম্প্রতিক তোলা (অনুর্দ্ধ ৩ মাস) পাসপোর্ট সাইজের ছবি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ফাঁকা জায়গায় আঠা দিয়ে সংযুক্ত করতে হবে, যার এক কপি পরীক্ষার হলে জমা নেয়া হবে এবং অন্যটি পরীক্ষার্থী সংরক্ষণ করবে।

বিগত বছরের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র:
জি ইউনিট: ২০১০-২০১১ | ২০১১-২০১২ |
ফিশারীজ বিভাগ: ২০০৫-২০০৬ | ২০০৬-২০০৭ | ২০০৭-২০০৮ | ২০০৮-২০০৯ | ২০০৯-২০১০ |

 

বাংলাদেশের যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স ও পাস) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে সেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার ঘোষিত তারিখ:

ভর্তি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ বিভাগ/অনুষদ/ডিসিপ্লিন, বিশ্ববিদ্যালয় যে গ্রুপ/ইউনিট/স্কুল/অনুষদের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে
৯ অক্টোবর ২০১২ ফিশারীজ বিভাগ, রাবি জি ইউনিট
নতুন তারিখ ঘোষণার অপেক্ষায় ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিন, খুবি জীববিজ্ঞান স্কুল
১২ অক্টোবর ২০১২ মৎস্যবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাবি ক ইউনিট
১২ অক্টোবর ২০১২ মেরিন ফিশারিজ বিভাগ, মেরিন ফিশারিজ একাডেমি মেফিএ
১০ নভেম্বর ২০১২ মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ, বাকৃবি বাকৃবি
১২ নভেম্বর ২০১২ ইন্সটিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ, চবি জি ইউনিট
১৭ নভেম্বর ২০১২ ফিশারীজ এন্ড মেরিন বায়োসায়েন্স বিভাগ, যবিপ্রবি বি ইউনিট
২৩ নভেম্বর ২০১২ মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ, সিকৃবি মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ
২৯ নভেম্বর ২০১২ ফিশারিজ অনুষদ, সিভাসু সিভাসু
১ ডিসেম্বর ২০১২ মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদ, পবিপ্রবি এ ইউনিট
১৪ ডিসেম্বর ২০১২ ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগ, নোবিপ্রবি এ গ্রুপ
২৯ ডিসেম্বর ২০১২ ফিশারিজ অনুষদ, বশেমুরকৃবি ফিশারিজ অনুষদ
৫ জানুয়ারি ২০১৩ ফিসারিজ অনুষদ, হাবিপ্রবি এ ইউনিট

 

 

পুনশ্চ:

  • বাংলাদেশের যেসব প্রতিষ্ঠানে মৎস্যবিজ্ঞান বা মৎস্যবিজ্ঞান সংশ্লিষ্ট কোর্স (অনার্স ও পাস) করার সুযোগ রয়েছে সেসব প্রতিষ্ঠানে ১০১২-২০১৩ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার প্রয়োজনীয় তথ্যাদি পর্যায়ক্রমে উপস্থাপন করা হচ্ছে যা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান (রাবিঢাবিচবি, সিভাসুখুবিবাকৃবিসিকৃবিবশেমরকৃবি,  হাবিপ্রবিনোবিপ্রবিযবিপ্রবিপবিপ্রবিবামেফিএশেফমফিক) কর্তৃক পরিবর্তিত হতে পারে। পরিবর্তিত তথ্যাদি সাথে সাথে আপডেট করা সম্ভব নয় বিধায় চুড়ান্ত তথ্য জানতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট, বিজ্ঞপ্তি, ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ইত্যাদি এবং পত্রিকা, রেডিও, টেলিভিশন ইত্যাদি সংবাদ মাধ্যমের প্রতি লক্ষ করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।
  • আমাদের দেশে ফিসারিজ শব্দের কয়েকটি বানানরীতি প্রচলিত যা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্নভাবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। যথা- ফিসারিজ, ফিসারীজ, ফিশারিজ, ফিশারীজ। আবার ফিসারিজের বাংলা অনুবাদেরও দুটি রূপ দেখতে পাওয়া যায়। যথা- মৎস্যবিজ্ঞান ও মাৎস্যবিজ্ঞান। এ লেখায় ফিসারিজের বানান ভিন্নতায় বিভ্রান্ত না হবার জন্য অনুরোধ করছি। যে প্রতিষ্ঠান যেভাবে ফিসারিজ শব্দটি লিখে থাকে এখানে তা অক্ষুণ্ণ রাখা হয়েছে।

Visitors' Opinion

Leave a Reply