ক্যাটাগরি: উপকূলীয় মাছ | মাছ | মাৎস্য সম্পদ | সামুদ্রিক মাছ

বাংলাদেশের মাছ: কামিলা (Yellow pike conger, Congresox talabon)

কামিলা, Yellow pike conger, Congresox talabon

কামিলা, Yellow pike conger, Congresox talabon

শ্রেণীতাত্ত্বিক অবস্থান (systematic position):
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Actinopterygii (ray-finned fishes)
বর্গ: Anguilliforms (Eels and morays)
উপবর্গ: Congroidei
পরিবার: Muraenesocidae (Pike congers)
গণ: Congresox
প্রজাতি: Congresox talabon

 

সমনাম (synonym) :

  • Conger talabon Cuvier , 1829
  • Muraenesox talabon (Cuvier , 1829)

 

সাধারণ নাম (common name):

  • ইংরেজি (English): Yellow pike conger
  • বাংলা (বাংলাদেশ): কামিলা

 

ভৌগোলিক বিস্তার (geographical distribution):
বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং ভারতের পূর্ব উপকূলীয় অঞ্চলে দেখতে পাওয়া যায় ( Rahman 1989 & 2005) । এছাড়াও ভারতের পূর্ব উপকূলীয় এলাকা শুরু করে ইন্দোনেশিয়া পর্যন্ত এদের দেখা পাওয়া যায় (Talwar & Jhingram 1991)।

 

সংরক্ষণ অবস্থা (conservation status):
IUCN Bangladesh (2000) এর মতে এটি বাংলাদেশে বিপন্ন প্রজাতির মাছ নয় ।

 

বাহ্যিক দৈহিক গঠন (external morphology) :
মাংসল দেহ দেখতে বাইম মাছের লম্বা ও নলাকার। মুখ খুব বড় এবং মুখের হা চোখের নিচ পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে। দাঁতগুলো সাধারণত বড় এবং সুস্পষ্ট। উপরের চোয়ালে তিন সারি এবং নিচের চোয়ালে চার সারি দাঁত রয়েছে । নিচের চোয়ালের সামনের দিকে এবং ভোমার এর উপরে সাপের বিষদাঁতের ন্যায় ছেদন দাঁত আছে । মাঝের ছেদন দাঁতটি বড় এবং ভোমার কলিকাল (vomer conical) এর উপরে অবস্থিত। মাথা লম্বাটে। ধড়টি লেজের চেয়ে এক চতুর্থাংশ কম লম্বা হয়ে থাকে । মুখের হা এর দৈর্ঘ্য মাথার দৈর্ঘ্যের অর্ধেক। পৃষ্ঠ পাখনা ফুলকা ছিদ্রের আগ পর্যন্ত বিস্তৃত থাকে। পৃষ্ঠ পাখনায় ৭০-৭৫ টি পাখনা রশ্মি বর্তমান। তুলনামূলকভাবে বৃহৎ বক্ষপাখনাটি মাথার দৈর্ঘ্যের প্রায় ২.৫-৩.২ গুণ লম্বা হয়ে থাকে । পার্শ্বরেখার ছিদ্রসমূহ পায়ু পর্যন্ত বিস্তৃত যার সংখ্যা ৪১-৪২টি ( Rahman 1989 & 2005 ) এবং ৩০-৩৫ টি ( Talwar & Jhingram 1991)। মাথা এবং দেহে হলুদ বর্ণের। কোন কোন সময় দেহের উপরের দিকে কালচে এবং মাথার উপরের দিকে জলপাই রঙের হয়ে থাকে । দেহের পশ্চাতের অংশ বাদামি , পেট সাদাটে এবং নীচের অংশ রূপালী রঙের হয়ে থাকে । চিবুক , ফুলকার ঢাকনা এবং গলায় সোনালী আভা দেখা যায় । পৃষ্ঠ এবং পায়ু পাখনার প্রান্তে সরু কালো রঙ উপস্থিত ( Rahman 1989 & 2005 , Talwar & Jhingram 1991)।

 

সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য (maximum length):
সর্বোচ্চ ৫০ সেমি পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে ( Talwar & Jhingram 1991)।

 

আবাসস্থল:
উপকূল ও মোহনা অঞ্চলের নরম তলদেশে এরা সাধারণত বসবাস করে। একশত মিটার গভীরতা পর্যন্ত এদের দেখতে পাওয়া যায় ( Talwar & Jhingram 1991)। বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, মোহনা অঞ্চল ছাড়াও যেসব নদীতে জোয়ার ভাটা চলে সেখানে এদের দেখতে পাওয়া যায় ( Rahman 1989 & 2005 ) ।

 

খাদ্য এবং খাদ্যাভ্যাস:
সাধারণত তলদেশের ছোট মাছ, খোলস বিশিষ্ট প্রাণী (crustaceans) এদের প্রধান খাদ্য ( Talwar & Jhingram 1991)।

 

তথ্যসূত্র (Reference):

  • Cuvier G (1829) Le Règne Animal, distribué d’après son organisation, pour servir de base à l’histoire naturelle des animaux et d’introduction à l’anatomie comparée. Edition 2. Le Règne Animal, distribué d’après son organisation, pour servir de base à l’histoire naturelle des animaux et d’introduction à l’anatomie comparée. Edition 2. 2: i-xv + 1-406.
  • IUCN Bangladesh (2000) Red book of threatened fishes of Bangladesh, IUCN- The world conservation union. xii+116 pp.
  • Rahman AKA (1989) Freshwater Fishes of Bangladesh, 1st edition, Zoological Society of Bangladesh, Department of Zoology, University of Dhaka, Dhaka-1000, p. 49.
  • Rahman AKA (2005) Freshwater Fishes of Bangladesh, 2nd edition, Zoological Society of Bangladesh, Department of Zoology, University of Dhaka, Dhaka-1000, p. 64.
  • Talwar PK and Jhingran AG (1991) Inland Fishes of India and Adjacent Countries, Vol. 1, Oxford & IBH Publishing Co. Pvt. Ltd. New Delhi-Calcutta, p. 89.

 

পুনশ্চ:

 

Visitors' Opinion

লেখক

Student, B. Sc. (Hons.) in Fisheries & Marine Bioscience, Jessore University of Science & Technology, Jessore 7404 , Bangladesh. Email: mamunfmb14@gmail.com, Phone: +88 01737396359, 01917558548. More...

Leave a Reply