ক্যাটাগরি: উপকূলীয় মাছ | মাছ | মাৎস্য সম্পদ

বাংলাদেশের মাছ: রাটা বউরা (Purple spaghetti-eel, Moringua raitaborua)

শ্রেণীতাত্ত্বিক অবস্থান (taxonomic position):
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Actinopterygii (Ray-finned fishes)
বর্গ: Anguilliformes (Eels)
গোত্র: Moringuidae (Spaghetti eels)
গণ: Moringua
প্রজাতি: Moringua raitaborua

 

সাধারণ নাম (common name):

  • ইংরেজি: Purple spaghetti-eel
  • স্থানীয় বাংলা: রাটা বউরা, রাতা বউরা, রাটা বরুয়া

 

সমনাম (Synonyms):
Muraena raitaborua Hamilton, 1822

 

ভৌগোলিক বিস্তৃতি (geographical distribution):
বাংলাদেশ (Rahman, 1989 and 2005) এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গাঙ্গেয় মোহনা (Talwar and Jhingran, 1991)।

 

সংরক্ষণ অবস্থা (conservation status):
এই প্রজাতিটি বাংলাদেশে বিলুপ্ত নয় (IUCN Bangladesh, 2000)।

 

বহি: অঙ্গসংস্থান (External morphology):
দেহ খুবই লম্বা। দেখতে অনেকটা সাপের মত নলাকার ও সরু। ধর নলাকার ও লেজ সমান্য চাপা। মোট দৈর্ঘ্য মাথার দৈর্ঘ্যের তুলনায় আট থেকে দশ গুণ বড়। ফুলকা ছিদ্রটি বক্ষ পাখনার ঠিক সামনে অবস্থিত। উপরের ও নীচের চোয়াল দুটি সমান। চোখ ছোট ও তুণ্ডের চেয়ে তুলনামূলকভাবে মুখের কাছে অবস্থিত। অগ্র ও পশ্চাদ নাসারন্ধ্র মাথার উপরের দিকে অবস্থিত। এক সারিতে অবস্থিত দাঁত অত্যন্ত ধারালো। দাঁতের অগ্রভাগ পিছনের দিকে বাঁকানো অবস্থায় থাকে (Rahman, 1989 and 2005; Talwar and Jhingran, 1991)।
পৃষ্ঠপাখনা সামান্য উন্নত। বক্ষ পাখনা ছোট ও গোলাকৃতির যা মুখছিদ্রের সমান। শ্রোণী পাখনা অনুপস্থিত। পুচ্ছ পাখনা গোলাকৃতির। পৃষ্ঠ ও পায়ু পাখনা উভয়েই মাঝ বরাবর দ্বিখণ্ডিত এবং পুচ্ছ পাখনার সাথে যুক্ত (Rahman, 1989 and 2005)। দেহের উচ্চতা মোট দৈর্ঘ্যের ৩০-৩৩ গুণ, মাথা আদর্শ দৈর্ঘ্যের ৮.২-৯ গুণ, লেজ মোট দৈর্ঘ্যের ২.৬-৩ গুণ এবং তুন্ড ও ভেন্ট (vent) এর মধ্যবর্তী দূরত্ব মোট দৈর্ঘ্যের ১.৫-১.৬ গুণ ছোট (Rahman, 1989 and 2005)।
দেহের উপরের পাশটি তামাটে জলপাই বা রক্ত বেগুণী বর্ণের হয়ে থাকে। অন্যদিকে অঙ্কীয় পাশটি রূপালী, হলদে বা সাদা বর্ণের হয়ে থাকে (Rahman, 1989 and 2005; Talwar and Jhingran, 1991)। দেহের উপরের পাশে (পার্শ্বরেখার উপরের অংশে) সামান্য কালো দাগ দেখতে পাওয়া যায়। লেজের শেষ প্রান্তে কালো দাগ বর্তমান (Rahman, 1989 and 2005)।

 

সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য:
Talwar and Jhingran (1991) অনুসারে ৩০ সেমি। অন্যদিকে Rahman (1989 and 2005) অনুসারে ২৫.৯ সেমি।

 

বাসস্থান:
এরা সাধারণত মোহনাতে থাকে (Talwar and Jhingran, 1991) বাংলাদেশ ও ভারতের নদী ও মোহনাতে এদের পাওয়া যায় (IUCN Bangladesh, 2000; Rahman, 1989 and 2005)। বাংলাদেশের চাঁদপুরের ডাকাতিয়া ও মেঘনা নদীতে এদের সচরাচর দেখা যায় (Rahman, 2005)।

 

মৎস্য তথ্য:
মৎস্য সেক্টরে এদের তেমন কোন গুরুত্ব নেই (Talwar and Jhingran, 1991)।

 

তথ্যসূত্র (Reference):

Hamilton F (1822) An account of the fishes found in the river Ganges and its branches. Edinburgh & London. An account of the fishes found in the river Ganges and its branches.: i-vii + 1-405, Pls. 1-39.

IUCN Bangladesh (2000) Red book of threatened fishes of Bangladesh, IUCN- The world conservation union. xii+116 pp.

Rahman AKA (1989) Freshwater Fishes of Bangladesh, 1st edition, Zoological Society of Bangladesh, Department of Zoology, University of Dhaka, Dhaka-1000, pp. 45-46.

Rahman AKA (2005) Freshwater Fishes of Bangladesh, 2nd edition, Zoological Society of Bangladesh, Department of Zoology, University of Dhaka, Dhaka-1000, pp. 60-61.

Talwar PK and Jhingran AG (1991) Inland Fishes of India and Adjacent Countries, Vol. 1, Oxford & IBH Publishing Co. Pvt. Ltd. New Delhi-Calcutta, pp. 77-78.

পুনশ্চ:

Visitors' Opinion

লেখক

Research Student, Bangladesh Agricultural University, Mymensingh-2202, Bangladesh. E-mail- Kamrulhasanak@gmail.com. More...

Leave a Reply