ক্যাটাগরি: মাছ | স্বাদুপানির মাছ

বাংলাদেশের মাছ: ল্যাইজ্জা দারকিনা, Gangetic scissortail rasbora, Rasbora rasbora

শ্রেণীতাত্ত্বিক অবস্থান (Systematic position)
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Actinopterygii (Ray-finned fishes)
বর্গ: Cypriniformes (Carps)
পরিবার: Cyprinidae (Minnows or carps)
উপপরিবার: Rasborinae
গণ: Rasbora
প্রজাতি: R. rasbora

নামের শব্দতত্ত্ব (Etymology)
এই মাছের জন্য ব্যবহৃত ভারতের স্থানীয় শব্দ তথা নাম থেকে Rasbora শব্দটি গ্রহণ করা হয়েছে (Fishbase, 2015)।

সমনাম (Synonyms)
Cyprinus rasbora Hamilton, 1822
Leuciscus microcephalus Jerdon, 1849
Leuciscus presbyter Valenciennes, 1844
Leuciscus rasbora Hamilton, 1822
Leuciscus xanthogrammae Jerdon, 1849
Leuciscus xanthogramme Jerdon, 1849
Rasbora buchanani Bleeker, 1860

সাধারণ নাম (Common name)
বাংলা: দারকিনা, ল্যাইজ্জা দারকিনা, ডারকিনা, লেজ্জা ডারকিনা ।
English: Gangetic scissortail rasbora

ভৌগলিক বিস্তৃতি (Geographical Distribution)
বাংলাদেশ, ভারত (গাঙ্গেয় প্রদেশ এবং আসাম), মায়ানমার, পাকিস্তান এবং থাইল্যান্ড (Talwar and Jhingran, 1991; Vishwanath, 2010) ।

সংরক্ষণ অবস্থা (Conservation status)
কৃষি কাজে ব্যবহৃত ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার এর কারণে এরা আজ বাংলাদেশে বিপন্ন (Endangered) প্রজাতির অন্তর্ভুক্ত (IUCN Bangladesh, 2000)।
বৈশ্বিক সংরক্ষণ অবস্থা মানদণ্ড 3.1 অনুসারে Least Concern (LC) অর্থাৎ প্রকৃতিতে বিস্তৃত পরিসরে পর্যাপ্ত পরিমাণে পাওয়া যায় তবে এদের জনতার ধারা (Population Trend) অজানা (Vishwanath, 2010)।

বাহ্যিক দৈহিক গঠন (External Morphology)
লম্বা দেহ পার্শ্বীয়ভাবে চাপা। এদের উদর তথা অঙ্কীয় প্রান্ত পৃষ্ঠ প্রান্তের চেয়ে অধিক উত্তল । মুখের হা ঊর্ধ্বমুখী এবং তির্যকভাবে অবস্থিত। উপরের চোয়াল চোখের সম্মুখ কিনারার নিচ পর্যন্ত বিস্তৃত। শ্রোণীপাখনা পুচ্ছপাখনার গোড়া ও তুণ্ডের মধ্যবর্তী স্থানে উৎপত্তিলাভ করেছে। শ্রোণী পাখনা যেখানে উৎপত্তিলাভ করে তার পেছনেই পৃষ্ঠদেশ বরাবর পৃষ্ঠপাখনা অবস্থান করে। পুচ্ছপাখনা দ্বিখণ্ডিত।
পার্শ্বরেখা সম্পূর্ণ এবং অবতল ভাবে অবস্থান করে। পার্শ্বরেখায় Rahman (1989 and 2005) অনুসারে ২৭-২৯ টি এবং Talwar and Jhingran (1991) অনুসারে ২৬-২৯ টি আঁইশ উপস্থিত। শরীরের পৃষ্ঠদেশের বর্ণ জলপাই-বাদামী এবং অঙ্কীয়দেশে রূপালী। নীল-কালো বর্ণের সরু ধনুকের ন্যায় একটি রেখা মাথা থেকে লেজ পর্যন্ত আনুভূমিকভাবে বিস্তৃত। পুচ্ছপাখনার শেষ প্রান্ত কালো বর্ণের হয়ে থাকে। তবে অন্যান্য পাখনার বর্ণ হলুদ বা হলুদাভ।
ভারতীয় গবেষণায় এই প্রজাতির মাছের ডিপ্লয়েড ক্রোমোজোম সংখ্যা ৫২ পাওয়া গেছে (Rahman and Chowdhury, 2009)।

পাখনা সূত্র (Fin formula)
D 9 (2/7); P1. 15; P2. 9; A. 7 (2/5) (Rahman, 1989 and 2005; IUCN Bangladesh, 2000)
D ii 7; A ii-iii 5; P i 14; V i 8 (Talwar and Jhingran, 1991).

সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য (Maximum length)
Rahman (1989 and 2005) অনুসারে ৮ সেমি; Talwar and Jhingran (1991) অনুসারে ১৩ সেমি এবং IUCN Bangladesh(2000) অনুসারে ১২ সেমি ।

আবাস্থল (Habitat)
স্বাদু পানিতে বসবাসকারী (Rahman, 1989 and 2005) এই মাছ জলাশয়ের তলদেশের নিকটবর্তী স্থানে যেমন থাকতে পছন্দ করে তেমনই পানির উপরিস্তরেও থাকতে পছন্দ করে। এদের পছন্দনীয় পিএইচ ৬-৬.৫, তাপমাত্রা ২০-২৫ °C (Fishbase, 2015)।
বাংলাদেশের খাল, বিল, পুকুর, স্রোতযুক্ত জলাধার ও প্লাবনভূমিতে পাওয়া যায়। স্বাদুপানির অভ্যন্তরেই এদের অভিপ্রয়াণ ঘটে। মাঝে মাঝে ঝাঁক বেধে চলে (Rahman and Chowdhury, 2009)।

খাদ্য এবং খাদ্যাভ্যাস (Food and feeding habit)
এরা পানির উপরের স্তরের খাবার খায় (IUCN Bangladesh, 2000) । বিশেষত প্রকৃতিতে এরা জলজ ও স্থলজ অমেরুদণ্ডী প্রাণী প্রধানত পতঙ্গ শিকার করে খেয়ে থাকে (Seriouslyfish, 2015)।

বাস্তুতাত্ত্বিক ভূমিকা (Ecological Role)
এরা শিকারি মাছের শিকারের অন্যতম উৎস। জলজ পরিবেশের উপরিতলে বসবাসকারী পোকামাকড়ের সংখ্যা ও শৈবাল ব্লুম নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়াও জলাশয়ের গলিত ও পচা খাবার খেয়ে পানি পরিস্কার রাখে (Rahman and Chowdhury, 2009)।

প্রজনন (Breeding)
একই বয়সের স্ত্রীরা পুরুষের চেয়ে আকারে সামান্য বড় ও স্ফীত গোলাকার উদরের অধিকারী হয়ে থাকে (Seriouslyfish, 2015)।

এ্যাকুয়ারিয়াম ব্যবস্থাপনা (Aquarium Management)
এদের জন্য আদর্শ এ্যাকুয়ারিয়ামের আকার কমপক্ষে ৪৮x১৮x১৮ ইঞ্চি বা ১২০x৪৫x৪৫ সেমি। অনুকূল তাপমাত্রা ৬৮-৭৭°F বা ২০-২৫°C, হার্ডনেস ২-১২°H এবং পিএইচ ৬-৭.৫ । এ্যাকুয়ারিয়ামে এরা সুবিধাজনক আকারের সকল শুষ্ক তথা প্যাকেটজাত খাবারই খেয়ে থাকে। এছাড়াও জীবন্ত ও হিমায়িত ডাফনিয়া (Daphnia), ব্লাডওয়ার্ম (bloodworm) ও এজাতীয় খাবারও খেয়ে খায় যা তাদের দেহকে সর্বোচ্চ বর্ণিল ও সফল প্রজননের উপযোগী করে তোলে (Seriouslyfish, 2015)।

অর্থনৈতিক গুরুত্ব (Economic importance)
এক প্রজাতি হিসেবে এদের উৎপাদন তথ্য পাওয়া যায় না। তবে অন্যান্য মাছের সাথে ধরা পড়ে। বাংলাদেশে খাবারের মাছ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তবে Rasbora daniconius এর চেয়ে এরা কম প্রচলিত (Rahman, 1989 and 2005)।
তবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বাহারি মাছ হিসেবে এদের জনপ্রিয়তা রয়েছে। বিশেষত সৌন্দর্যময় এবং টেকসই হওয়ার জন্য এরা ছোট এ্যাকুয়ারিয়াম মাছ হিসাবে ভারতে বেশ জনপ্রিয় (Talwar and Jhingran, 1991) ।

 

তথ্য সূত্র (References)

  • Bleeker P (1860) De visschen van den Indischen Archipel, Beschreven en Toegelicht. Deel II. Acta Societatis Regiae Scientiarum Indo-Neêrlandicae 7 (N. S., v. 2): 1-492 + i-xiii.
  • Cuvier G and Valenciennes A (1844) Histoire naturelle des poissons. Tome dix-septième. Suite du livre dix-huitième. Cyprinoïdes. Histoire naturelle des poissons. 17: i-xxiii + 1-497 + 2 pp., Pls. 487-519.
  • Fishbase (2015) Rasbora rasbora (Hamilton, 1822), Gangetic scissortail rasbora. Downloaded on 05 April 2015 and form http://www.fishbase.org/summary/10382
  • Hamilton F (1822) An account of the fishes found in the river Ganges and its branches. Edinburgh & London. An account of the fishes found in the river Ganges and its branches.: i-vii + 1-405, Pls. 1-39.
  • IUCN Bangladesh (2000) Red book of threatened fishes of Bangladesh, IUCN- The world conservation union. xii+116 pp.
  • Jerdon TC (1849) On the fresh-water fishes of southern India. (Continued from p. 149.). Madras Journal of Literature and Science 15(2):302-346.
  • Rahman AKA (1989) Freshwater Fishes of Bangladesh, 1st edition, Zoological Society of Bangladesh, Department of Zoology, University of Dhaka, Dhaka-1000, pp. 88-89.
  • Rahman AKA (2005) Freshwater Fishes of Bangladesh, 2nd edition, Zoological Society of Bangladesh, Department of Zoology, University of Dhaka, Dhaka-1000, pp. 105-106.
  • Rahman AKA and Chowdhury GW (2009) Rasbora rasbora. In: Ahmed ZU, Ahmed ATA, Kabir SMH, Ahmed M, Begum ZNT, Hasan MA and Khondker M (eds.) Encyclopedia of Flora and Fauna of Bangladesh, Vol. 23. Freshwater Fishes (In Bengali). Asiatic Society of Bangladesh, Dhaka. pp. 105-106.
  • Seriouslyfish (2015) Species profile: Rasbora rasbora, Gangetic Scissortail Rasbora. Downloaded on 05 April 2015 and from http://www.seriouslyfish.com/species/rasbora-rasbora/
  • Talwar PK and Jhingran AG (1991) Inland Fishes of India and Adjacent Countries, Vol. 1, Oxford & IBH Publishing Co. Pvt. Ltd. New Delhi-Calcutta, p. 390.
  • Vishwanath, W. 2010. Rasbora rasbora. The IUCN Red List of Threatened Species. Version 2014.3. . Downloaded on 06 April 2015 and from http://www.iucnredlist.org/details/166440/0

 

English Feature:

 

পুনশ্চ:

আমাদের সংগ্রহে এই মাছের কোন ছবি নেই। আপনাদের সংগ্রহে আপনার তোলা বা কপিরাইট মুক্ত কোন ছবি থাকলে আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। আমরা কৃতজ্ঞতা চিত্তে আপনার এই অবদানকে স্মরণ করবো। গুগলে এই মাছের ছবি দেখতে অনুগ্রহকরে এখানে ক্লিক করুন।

Visitors' Opinion

লেখক

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারীজ বিভাগের বিএস-সি ফিশারীজ (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

Leave a Reply