ক্যাটাগরি: কবিতা | নানাবিধ | প্রতিষ্ঠান | মাৎস্য সম্পদ | শিক্ষা

ফিশারীজ বিভাগের আত্মকথা

আহা মজা! কি দারুণ! লাগছে আমার আজ দেখছি গায়ে জন্মদিনের নতুন নতুন সাজ। চারপাশে মোর বাজছে শুধু হাজার সুরের বীন সত্যিই কি? আজকে আমার শুভ জন্মদিন?

ব্যস্ত সকল মানুষগুলো ছুটছে নানান কাজে তারই ফাঁকে সবাই যে আজ মিলছে সবার মাঝে। স্মৃতির পাতায় হাজার ছবি, হরেক রকম কথা এসো জানাই সবাইকে আজ আমার আত্মকথা।

জন্ম আমার হয়েছিল বছর দশেক আগে ২০০০ সালে সে এক নতুন শতক প্রাতে। তৃতীয় বিজ্ঞান ভবনের চতুর্থ তলায় সকলে মোরে বরণ করে বসাল সেথায়।

নতুন শতক, নতুন দ্বার, নিত্য আশা প্রাণে জন্ম নেবে শিক্ষার আলো আমার আঙ্গিনাতে।

এরই মাঝে আসল এক মজার রকম ক্লেশ উপরওয়ালা দিয়েছে আমায় …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: ইভেন্ট | উৎসব

রাবি ফিশারীজ বিভাগের দশ বছর পূর্তি উৎসব ২০১০

রাবি ফিশারীজ বিভাগের ১০ বছর পূর্তি উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ

রাবি ফিশারীজ বিভাগের ১০ বছর পূর্তি উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দ

সময়ের বহমানতায় হাঁটি হাঁটি পা পা করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারীজ বিভাগ দশ দশটি বছর অতিক্রম করে এসেছে। ২০০০ সালের ২৩ শে সেপ্টেম্বর এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ফিশারীজ নামক যে চারা গাছটি রোপিত হয়েছিল আজ তা নব পত্র পল্লবে সজ্জিত হয়ে তার শাখা প্রশাখা বিস্তার লাভ করেছে এবং জানিয়ে দিচ্ছে তার উপস্থিতি। এরই সূত্র ধরে গত ২৩ শে অক্টোবর, শনিবার বিপুল উৎসাহ, …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: লাইভলিহুড

নাজিরারটেক শুঁটকি পল্লীর অর্থনৈতিক অবস্থা ও জীবনমান

নাজিরারটেক শুঁটকি পল্লীর মাছ শুকানোর একটি রেলিং

নাজিরারটেক শুঁটকি পল্লীর মাছ শুকানোর একটি রেলিং

অসংখ্য নদ-নদী ও বঙ্গোপসাগরের বিশালায়তন জলরাশির দ্বারা বিধাতার আশীর্বাদপুষ্ট একটি দেশ বাংলাদেশ। যেখানে ফিশারীজ একটি অপার সম্ভাবনাময় খাত। বর্তমানে বাংলাদেশের রপ্তানী আয়ের ৪.০৪% আসে মাছ ও মৎস্যজাত বিভিন্ন পণ্য হতে। রপ্তানীকৃত মৎস্যজাত পণ্যের মধ্যে শুঁটকি একটি উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করে আছে যার দেশে ও দেশের বাইরে রয়েছে যথেষ্ট চাহিদা। জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ সংকলন ২০০৯ অনুযায়ী ২০০৭-০৮ সালে বাংলাদেশ হতে সর্বমোট ২১০ টন শুঁটকি বিদেশে রপ্তানী হয় যার মূল্য ছিল ২.৬৭ কোটি টাকা (সূত্র: জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণ | মাৎস্য প্রযুক্তি

সনাতন পদ্ধতিতে সামুদ্রিক মাছ শুঁটকীকরণ

সহজ কথায় মাছ শুকিয়ে সংরক্ষণ করার প্রক্রিয়াকে শুঁটকীকরণ বলা হয়ে থাকে। সাধারণত মাছের মধ্যস্ত জলীয় অংশ সুর্যের আলো বা তাপ প্রয়োগ অথবা অন্য কোন পদ্ধতিতে শুকিয়ে দীর্ঘ্য দিন সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে। আমাদের দেশের বেশিরভাগ শুঁটকি তৈরি করা হয় সনাতন পদ্ধতিতে।

মাছের শুঁটকী প্রস্তুত, সংরক্ষণ, মজুদ ও বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়াটি ধারাবাহিকভাবে নিচে দেয়া হল (চিত্র-১) –

ধাপ-১। মাচা, বাঁশের রেলিং বা মই তৈরী ধাপ-২। মাছ সংগ্রহ বা মাছ আহরণ ধাপ-৩। সতেজ মাছ বাছাই ও গ্রেডিং ধাপ-৪। আঁইশ ছাড়ানো ও পরিষ্কারকরণ ধাপ-৫। ধৌতকরণ ও লবন মিশ্রিতকরণ ও পুনঃধৌতকরণ ধাপ-৬। আবহাওয়া খারাপ হলে সরবিকম মিশানো ধাপ-৭। মাছ রোদে শুকানো

মাচায় বিছিয়ে দেওয়া বা …বিস্তারিত