ক্যাটাগরি: মাছ | মাৎস্য সম্পদ | স্বাদুপানির মাছ

তারা বাইম

তারা বাইম

লম্বাটে শরীরের এ মাছটির লেজের কাছাকাছি দেহের উপরের অংশে পৃষ্ঠ পাখনার নীচ দিয়ে ৪-৫ টি লাল বা কমলা বা সাদাটে বলয়ে ঘেরা কালো বৃত্তাকার দাগযুক্ত এ মাছটি বর্ষার সময় চলন বিলে প্রচুর পরিমাণে ধরা পড়ে। অনেকে এ মাছটিকে গুচি মাছ বলে অভিহিত করলেও গুচি মাছে তারা বাইমের ন্যায় উপরোক্ত দাগসমূহ থাকে না। তারা বাইমের বৈজ্ঞানিক নাম Macrognathus aculeatus। লেজ ছোট ও গোলাকার। দেহের উপরের অংশের বর্ণ বাদামী এবং পেটের দিকে হলুদাভাব বা সাদাটে রংয়ের। এদের মুখ সূচালো এবং কোন স্পর্শী থাকে না। তারা বাইমের আঁইশ ক্ষুদ্র এবং গোলাকার। এদের মাথার আঁইশ দেহের অন্যন্য আঁইশের …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: মাছ | মাৎস্য সম্পদ | স্বাদুপানির মাছ

গাং মাগুর

গাং মাগুর

গাং মাগুর স্থানীয়ভাবে গাগর নামেই বহুল পরিচিত এবং সাধারণত চলন বিলের উত্তরাংশেই (সিংড়া, নলডাঙ্গা, কালীগঞ্জ, আত্রাই) পাওয়া যায়। লম্বাটে দেহের এ মাছটির মাথা উপরে-নীচে চাপা এবং দেহের পেছনের অংশ পার্শ্বীয়ভাবে চ্যাপ্টা। এদের দেহের দু’পাশে উল্লম্বভাবে সজ্জিত ছোট ছোট দাগ বিদ্যমান। মুখে ৪ জোড়া স্পর্শী থাকে যার মধ্যে একজোড়া দেহের অর্ধেকাংশের চেয়ে বড়। গাগর বা গাং মাগুর মাছের বৈজ্ঞানিক নাম Hemibagrus menoda

গাগরের দেহের উপরের অংশের রং ধূসরাভাব-বাদামী এবং তলদেশ হলুদাভাব বা সাদাটে। এরা সাধারণত জলাশয়ে পানির কর্মমক্ত তলদেশে থাকতে পছন্দ করে। বর্ষার শেষে জলাশয়ের পানি কমে গেলে কাদার মধ্যের গর্ত হতে প্রধানত এদের আহরণ …বিস্তারিত