ক্যাটাগরি: মাছ | মাৎস্য সম্পদ | স্বাদুপানির মাছ

বাংলাদেশের মাছ: করিকা, Korica, Schistura corica

শ্রেণীতাত্ত্বিক অবস্থান (Systematic position) পর্ব: Chordata শ্রেণী: Actinopterygii (Ray-finned fishes) বর্গ: Cypriniformes (Carps) পরিবার: Balitoridae (River loaches) উপপরিবার: Nemacheilinae গণ: Schistura প্রজাতি: S. corica

সমনাম (Synonyms) Acoura cinerea (Swainson, 1839) Cobites cinerea Swainson, 1839 Cobitis corica Hamilton, 1822 Nemacheilus corica (Hamilton, 1822) Noemacheilus corica (Hamilton, 1822) Schistura corica (Hamilton 1822) Schistura punctata McClelland, 1839

সাধারণ নাম (Common name) বাংলা: করিকা, কইরকা ও খরিকা । English: River loach, Polka dotted loach, Corica loach

ভৌগলিক বিস্তৃতি (Geographical Distribution) বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও পাকিস্তানে এদের দেখা মেলে (Talwar …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: মাৎস্য চাষ | স্বাদুপানি | হ্যাচারি

দেশীয় ছোট মাছের গুরুত্ব ও চাষ প্রযুক্তি

কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দেশীয় ছোট মাছ

কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দেশীয় ছোট মাছ

দেশীয় ছোট মাছ: সাধারণত এ দেশের প্রাকৃতিক উৎসজাত এমন মাছ যেগুলো পূর্ণ বয়স্ক অবস্থায় সর্বোচ্চ ৯ ইঞ্চি বা ২৫ সে.মি. পর্যন্ত আকারের হয়ে থাকে সেগুলোকে দেশী ছোট মাছ বলে। এ দেশের স্বাদু পানির ২৬০টি প্রজাতির মাছের মধ্যে অধিকাংশই ছোট মাছ। তবে বর্তমানে এর মধ্যে মাত্র ৫০ প্রজাতির ছোট মাছ কোন …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: মাছ | মাৎস্য সম্পদ | স্বাদুপানির মাছ

মৎস্য পরিচিতি: এ্যাংরট

এ্যাংরট: Labeo angra

এ্যাংরট: Labeo angra

এ্যাংরট বা খরসা বা খরিস নামের এই মাছটির মাছটির বৈজ্ঞানিক নাম Labeo angra এবং ইংলিশ নাম angra labeo।

মাছটি দেখতে অনেকটা রুই মাছের মত। কিন্তু গায়ের রং ও আকৃতিতে অনেক পার্থক্য বিদ্যমান। দেহের পৃষ্ঠভাগ কালচে সবুজ বর্ণের এবং অঙ্কীয়দেশ সাদা বর্ণের। দেহের পুচ্ছভাগে প্রায় গোলাকার কালো বর্ণের একটি দাগ দেখতে পাওয়া যায়। মাছটির পার্শ্বরেখা সম্পূর্ণ। আঁইশ তুলনামুলক ভাবে ছোট। মুখে অতি ক্ষুদ্র দুই জোড়া বার্বেল থাকে। পুচ্ছ পাখনা গভীর …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: মাছ | মাৎস্য সম্পদ

মৎস্য পরিচিতি: নান্দিনা

নান্দিনা মাছ বাংলাদেশে নান্দিল বা নান্দি নামে পরিচিত যার বৈজ্ঞানিক নাম Labeo nandina। এ মাছটি সিপ্রিনিফরমিস (Cyprinifoormes) বর্গের সিপ্রিনিডি (Cypriidae) গোত্রের অন্তর্ভুক্ত। নান্দিনার ইংরেজী নাম Nandi labeo।

ভৌগোলিক বিস্তার: বাংলাদেশ, পশ্চিম বাংলা এবং আসাম (ভারত) এবং মায়ানমার (Talwar and Jhingran, 1991)।

দেহ বর্ণনা: মাছটির দেহ লম্বাটে এবং পিঠের অংশ পেটের অংশের তুলনায় উত্তল। চোখের মনির চারদিক লাল বর্ণের। পৃষ্ঠ পাখনা অনেকটা গোলাকার এবং পুচ্ছপাখনা গভীর খাঁজযুক্ত। মাথার নিচ দিক থেকে দেখলে চোখ বোঝা যায় না। ঠোঁট প্রান্তীয় ও পাতলা এবং নিচের অংশটি প্যাপিলা যুক্ত। তুণ্ড …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: মাছ | মাৎস্য সম্পদ

মলা

মলা

সবারই অতি পরিচিত মলা মাছকে চলন বিল এলাকায় স্থানীয়ভাবে মোয়া বা মসি নামেও ডাকা হয়। এর বৈজ্ঞানিক নাম Amblypharyngodon mola এবং ইংরেজী নাম Mola carplet। চ্যাপ্টা দেহের লম্বাটে এ মাছটির আঁইশ ক্ষুদ্রাকার এবং মাথা থেকে লেজ পর্যন্ত একটি সুস্পষ্ট ডোরা বিদ্যমান। মলা মাছের দেহের বর্ণ রূপালী এবং পার্শরেখা অসম্পূর্ণ ও চোখ বড়। এ মাছ আকারে প্রায় ১৫ সে.মি. পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে।

মলা মাছ খাল-বিল, নদী-নালা, হাওড়-বাওড়, পুকুরে, এমনকি বর্ষাকালে প্লাবিত ধানক্ষেতেও বাস করে। এরা সাধারণত পানির উপরিভাগে ঝাঁকে …বিস্তারিত