ক্যাটাগরি: জীববিজ্ঞান | পূর্বপাঠ | প্রাণিবিজ্ঞান

পর্ব প্লাটিহেলমিনথিস (Platyhelminthes) এবং নেমাটোডা (Nematoda)

ফিশারীজ কোন মৌলিক বিজ্ঞান নয় বরং এটি জীববিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও পদার্থবিজ্ঞানের একটি সমন্বিত বিজ্ঞান যা মাছ ও অন্যান্য অর্থনৈতিক গুরুত্ব বিশিষ্ট জলজ প্রাণীদের জীবতত্ত্ব, চাষ, আবাসস্থল ব্যবস্থাপনা, আহরণ, প্রক্রিয়াজনকরণ ইত্যাদি বিষয়ে বিজ্ঞানভিত্তিক আলোচনা করে। তাই ফিশারীজকে বুঝতে হলে অবশ্যই জীববিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও পদার্থবিজ্ঞানের মৌলিক বিষয়াদি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা থাকা প্রয়োজন। সে উদ্দেশ্য পূরণকল্পে শুরু হল বিডিফিশ বাংলার পূর্বপাঠ অধ্যায়। এলেখার বিষয় পর্ব প্লাটিহেলমিনথিস (Platyhelminthes) এবং নেমাটোডা (Nematoda)। সাথে রইল কুইজে অংশ নেয়ার সুযোগ

 

পর্ব প্লাটিহেলমিনথিস (Platyhelminthes)

প্লাটিহেলমিনথিস পর্বের প্রাণীদের বৈশিষ্ট্য:

[গ্রিক শব্দ Platys অর্থ Flat তথা চ্যাপ্টা এবং Helmins অর্ধ Worm তথা কৃমি বা কীট]

  • দ্বিপার্শ্বীয় প্রতিসম এবং উপর-নিচে (Dorso-ventrally) চাপা দেহ অনেকটা ফিতা বা পাতার মত।
  • দেহ-গহ্বর তথা সিলোম (Coelom) অনুপস্থিত এবং অভ্যন্তরীণ অঙ্গসমূহের মধ্যবর্তী স্থান মেসেনকাইম (Mesenchyme) নামক কলায় পূর্ণ।
  • শিখা-কোষ (Flame cell) উপস্থিত যা রেচন কাজে অংশগ্রহণ করে।
  • অধিকাংশ প্রাণীদের সম্মুখ প্রান্তে অবস্থিত হুকের (Hook) ন্যায় চোষক অঙ্গ পোষকদেহের সাথে আটকে থাকতে ব্যবহৃত হয়।
  • এরা ত্রিস্তর বিশিষ্ট (Triplobalstic) প্রাণী অর্থাৎ এদের ভ্রূণে তিনটি জার্মিনাল (Germinal) স্তর দেখতে পাওয়া যায়।

 

প্লাটিহেলমিনথিস পর্বের প্রাণীদের শ্রেণীবিন্যাস:

শ্রেণী: টারবেলারিয়া (Turbellaria)

[ল্যাটিন শব্দ Turbella অর্থ Stirring]

  • পাতার মতো দেহে কিউটিকল () অনুপস্থিত তবে এপিডার্মিস (Epidermis) সিলিয়াময় (Ciliated) এবং র‍্যাবডাইট (Rhabdite) বিশিষ্ট।
  • চোষক অঙ্গ উপস্থিত অথবা অনুপস্থিত।
  • মুখছিদ্র অঙ্কীয় দিকে উন্মুক্ত এবং পেশীময় গলবিলের (Muscular pharynx) মাধ্যমে অন্ত্রের (Intestine) সাথে যুক্ত।
  • অধিকাংশই উভলিঙ্গ (Hermaphrodite) অর্থাৎ একই প্রাণীদেহে পুরুষ ও স্ত্রী প্রজনন অঙ্গ বর্তমান, অনেকেই অযৌন পদ্ধতিতে বংশ বিস্তার করে থাকে।
  • চোষক (Sucker) অনুপস্থিত।
  • মুক্তজীবী এবং লার্ভা (Larva) দশা অনুপস্থিত।
  • স্থলচর (Terrestrial) বা জলচর (Aquatic), সামুদ্রিক বা স্বাদুপানিতে বসবাসকারী।
  • সাধারণভাবে এরা এডিওয়ার্ম (Eddyworm) নামে পরিচিত।
  • উদাহরণ: Dugesia tigrina (প্লানেরিয়া)

 

শ্রেণী: ট্রিমাটোডা (Trematoda)

[গ্রিক শব্দ Trema অর্থ Hole তথা গর্ত বা বিবর বা কোটর  এবং Eidos অর্থাৎ Form তথা আকার]

  • নলাকার বা চ্যাপ্টা পাতার মতো দেহে কিউটিকলের পুরু স্তর বর্তমান এবং সিলিয়া অনুপস্থিত।
  • মুখছিদ্রকে পরিবৃত্ত করে অবস্থান করা একটি বৃহৎ চোষক অঙ্গ বর্তমান এবং অনেক সময় হুক (Hook) দেখতে পাওয়া যায়।
  • একটি মুখছিদ্র এবং দুটি শাখায় বিভক্ত খাদ্যনালী উপস্থিত কিন্তু পায়ু (Anus) অনুপস্থিত।
  • একাধিক লার্ভা (Larva) দশা উপস্থিত।
  • সকলেই পরজীবী (বহিঃ অথবা অন্তঃ) এবং জীবনচক্র সম্পন্ন করতে পর্যায়ক্রমে মেরুদণ্ডী ও অমেরুদণ্ডী পোষকদেহে অবস্থান করতে হয়।
  • অধিকাংশই উভলিঙ্গ (Monoecious) প্রাণী অর্থাৎ একই প্রাণীদেহে পুরুষ ও স্ত্রী প্রজনন অঙ্গ বর্তমান।
  • সাধারণভাবে ফ্লুক (Fluke) নামে পরিচিত।
  • উদাহরণ: Fasciola hepatica (যকৃত কৃমি)


শ্রেণী: সিস্টোডা (Cestoda)

[গ্রিক শব্দ Kestos অর্থ Girdle তথা কটিবন্ধ এবং Eidos অর্থ Form তথা আকার]

  • দীর্ঘ ও চ্যাপ্টা ফিতার মতো দেহে কিউটিকলের স্তর পুরু তবে সিলিয়া অনুপস্থিত এবং ৮০০-৯০০টি প্রোগ্লোটিড (Proglottid) নামক খণ্ডাংশ নিয়ে গঠিত।
  • প্রতিটি খণ্ডাংশ এক বা দুই সেট পুরুষ অথবা স্ত্রী প্রজনন অঙ্গ বহন করে।
  • দেহের অগ্র প্রান্তে চোষক অঙ্গ (Sucker) ও বাঁকা হুক (Hook) বিশিষ্ট স্কোলেক্স (Scolex) বর্তমান।
  • মুখছিদ্র ও খাদ্যনালী অনুপস্থিত।
  • সংবেদী অঙ্গ (Sense organ) অনুপস্থিত।
  • একাধিক লার্ভা (Larva) দশা উপস্থিত।
  • সকলেই অন্তঃপরজীবী এবং জীবনচক্র সম্পন্ন করতে এক বা একাধিক পোষকদেহে অবস্থান করতে হয়।
  • সাধারণভাবে এরা টেপওয়ার্ম (Tapeworm) নামে পরিচিত।
  • উদাহরণ: Taenia solium (ফিতা কৃমি)

 

পর্ব নেমাটোডা (Nematoda)

নেমাটোডা পর্বের প্রাণীদের বৈশিষ্ট্য:

[গ্রিক শব্দ Nema অর্থ Thread তথা সূতা এবং Eidos অর্ধ Form তথা আকার]

  • দ্বিপার্শ্বীয় প্রতিসম ও নলাকার দেহের অগ্র ও পশ্চাৎ প্রান্ত সুচালো।
  • দেহ এলাস্টিন (Elastin) নামক কিউটিকলে (Cuticle) আবৃত।
  • দেহাভ্যন্তরে অপ্রকৃত ধরনের সিলোম (Coelom) উপস্থিত। অর্থাৎ এ সিলোমে প্যরাইটাল আবরণী এ ভিসেরাল আবরণী অনুপস্থিত এবং মেসোডার্ম উদ্ভূত নয়।
  • পেশীময় গলবিল (Muscular Pharynx) এবং গ্রন্থিসহ (Galand) পরিপূর্ণ পরিপাকতন্ত্র বর্তমান।
  • বৈশিষ্ট্যময় মুখছিদ্র ওষ্ঠ (Lip) দিয়ে পরিবেষ্টিত।
  • একটি বৃত্তাকার স্নায়ু-অঙ্গুলি (Nerve-ring) এবং কিছু স্নায়ু কোষ ও লম্বালম্বিভাবে অবস্থিত স্নায়ুরজ্জু নিয়ে গঠিত।
  • সিলিয়া (Cilia) অনুপস্থিত। সংবহনতন্ত্র ও শ্বসনতন্ত্র অনুপস্থিত।
  • এরা একলিঙ্গ (Dioecious) প্রাণী অর্থাৎ পুরুষ ও স্ত্রী প্রজনন অঙ্গ দুটি আলাদা প্রাণীদেহে অবস্থান করে। একই বয়সের পুরুষেরা স্ত্রীদের চেয়ে ছোট। প্রজনন অঙ্গ (Gonad) একটি বা দুটি। পুরুষ প্রজনন নালিকা (Genital duct) অবসারণী (Cloaca) উন্মুক্ত কিন্তু স্ত্রী প্রজনন নালিকা (Genital duct)  নিজস্ব ছিদ্র পথে উন্মুক্ত।
  • জলজ (Aquatic) বা স্থলজ (Terrestrial) বা পরজীবী (Parasite)।

 

নেমাটোডা পর্বের প্রাণীদের শ্রেণীবিন্যাস:

শ্রেণী: অ্যাফ্যাসমিডা (Aphasmidia)

  • ফ্যাসমিড (Phasmid) নামক পুচ্ছদেশীয় সংবেদন অঙ্গ (Caudal sensory organ) অনুপস্থিত।
  • ওষ্ঠের পশ্চাতে বিভিন্ন আকৃতির অ্যামফিড (Amphid) নামক অগ্র প্রান্তীয় সংবেদন অঙ্গ (Anterior sensory organ) দেখতে পাওয়া যায়।
  • সাধারণত রেচনঅঙ্গ অনুপস্থিত। উপস্থিত থাকলে তা উন্নত নয়।
  • পুচ্ছদেশীয় আঠালো গ্রন্থি (Caudal adhesive gland) বর্তমান।
  • অধিকাংশই মুক্তজীবী।
  • উদাহরণ: Trichinella spiralis (চাবুক কৃমি),

 

শ্রেণী: ফ্যাসমিডা (Phasmidia)

  • ফ্যাসমিড (Phasmid) নামক পুচ্ছদেশীয় সংবেদন অঙ্গ (Caudal sensory organ) উপস্থিত।
  • ওষ্ঠের পার্শ্বে ছিদ্রের মত অ্যামফিড (Amphid) নামক অগ্র প্রান্তীয় সংবেদন অঙ্গ (Anterior sensory organ) বর্তমান।
  • উন্নতমানের রেচনঅঙ্গ বর্তমান।
  • পুচ্ছদেশীয় আঠালো গ্রন্থি (Caudal adhesive gland) অনুপস্থিত।
  • অধিকাংশই পরজীবী।
  • উদাহরণ: Loa loa (চোখ কৃমি), Ascaris lumbricodes (গোল কৃমি), Wuchereria bancrofti (ফাইলেরিয়া কৃমি),  Enterobius vermicularis (গুড়া কৃমি)

 

কুইজে অংশ নিতে লিঙ্কটি অনুসরণ করুন

 

Visitors' Opinion

লেখক

প্রাণিবিদ্যায় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর। বিস্তারিত

Leave a Reply