ক্যাটাগরি: খাবার মাৎস্য | গণ সচেতনতা | মাৎস্য বাণিজ্য

দেশী রূপচাঁদা ও বিদেশী লাল পাকু মাছের মধ্যে পার্থক্য

লাল পাকু (বাংলাদেশে পিরানহা নামেই অধিক পরিচিত)

লাল পাকু (বাংলাদেশে পিরানহা নামেই অধিক পরিচিত)

রূপচাঁদা বা রূপচাঁন্দা (সংরক্ষণকৃত)

রূপচাঁদা বা রূপচাঁন্দা (সংরক্ষণকৃত)

দক্ষিণ আমেরিকার স্বাদুপানির মাছ লাল পাকু (বাংলাদেশে পিরানহা নামেই অধিক পরিচিত) বাংলাদেশে বাহারী মাছ হিসেবে প্রবেশ করলেও পরবর্তীতে হ্যাচরী মালিক ও মাছচাষীদের হাত ধরে প্রায় সারা দেশের চাষের পুকুরে চলে আসে। আশঙ্কা করা হয় এই মাছ আমাদের মুক্ত জলাশয়ে চলে আসলে তা হবে আমাদের মাৎস্য জীববৈচিত্র্যের জন্য হুমকি স্বরূপ। তেলাপিয়া, নাইলোটিকা এবং সিলভার কার্পের মতো ‌এই মাছেরও সহজেই মুক্ত জলাশয়ে চলে আসাটাই স্বাভাবিক। ঠিক এরকম একটি সময়ে এই মাছের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে উৎপাদক থেকে শুরু করে বিক্রেতাদের কাছে এই মাছের নামকরণ হয় থাই রূপচাঁদা বা থাই চাঁদা যা খুবই বিভ্রান্তিকর।

সূক্ষ্ম দৃষ্টিতে দেশী রূপচাঁদা ও পাকু মাছের মধ্যে অনেক পার্থক্য থাকলেও আপাত দৃষ্টিতে কিছু মিল বর্তমান। এরই সুযোগ নিয়ে বাজারের অসাধু মাছ বিক্রেতারা পাকু মাছকে বিদেশী বা থাই রূপচাঁদা বা থাই চাঁদা নামে বিক্রি করে নিরীহ ক্রেতা সাধারণকে ঠকিয়ে আসছে।

ক্রেতা সাধারণের সচেতনতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে রূপচাঁদা ও পাকু মাছের মধ্যে পার্থক্য ছবিতে (উপরে) ও ছকে (নিচে) উপস্থাপন করা হলো। প্রত্যাশা করি ক্রেতা সাধারণ রূপচাঁদা ও থাই রূপচাঁদা মাছ চিনে সঠিক মাছটি কিনতে সক্ষম হওয়ার মাধ্যমে উপকৃত হবেন।

ক্রম রূপচাঁদা লাল পাকু (বাংলাদেশে পিরানহা নামেই অধিক পরিচিত)
১। চোয়ালে দাঁত অনুস্থিত চোয়ালে ধারালো দাঁত বর্তমান
২। কানকুয়া (operculum) সংক্ষিপ্ত ও অস্পষ্ট কানকুয়া (operculum) বড় ও স্পষ্ট
৩। এডিপোজ পাখনা (adipose fin) অনুপস্থিত এডিপোজ পাখনা (adipose fin) উপস্থিত
৪। গায়ের রং উজ্জ্বল বর্ণের গায়ের রং ধূসর বর্ণের
৫। সামুদ্রিক মাছ স্বাদু পানির মাছ

 


Visited 3,607 times, 2 visits today | Have any fisheries relevant question?

Visitors' Opinion

লেখক

প্রফেসর, ফিশারীজ বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী-৬২০৫, বাংলাদেশ। বিস্তারিত ...

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.