ক্যাটাগরি: ক্যারিয়ার | বিএস-সি ফিশারীজ | শিক্ষা

বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স) -এ ভর্তি প্রস্তুতি: ন্যূনতম যোগ্যতা (শিক্ষাবর্ষ: ২০১০-২০১১)

এস.এস.সি পরীক্ষা পাশের পর একজন শিক্ষার্থী নিজেকে ফিশারীজ সংশ্লিষ্ট কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইলে তাকে আন্ডার গ্রাজুয়েট পর্যায়ে বি.এস-সি. ফিশারীজ অনার্স অথবা পাশ কোর্সে ভর্তি হতে হবে। বাংলাদেশের এগারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ও একটি কলেজে বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স) কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশ মেরিন একাডেমী থেকে বি.এস-সি. ফিশারীজ পাশ কোর্স করার সুযোগ রয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারীজ অনুষদে এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের (যেমন- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়) বিভিন্ন অনুষদ/স্কুল ভুক্ত ফিশারীজ বা ফিশারীজ সংশ্লিষ্ট বিভাগে/ডিসিপ্লিনে আর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ-এ ভর্তি হয়ে এই কোর্স করার করার সুযোগ রয়েছে (আরও বিস্তারিত)।

তবে উল্লেখিত যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চাইলে একজন শিক্ষার্থীকে একটি প্রতিযোগিতামূলক ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। তবে চাইলেই এই ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা যায় না। তার জন্য প্রয়োজন হয় ন্যূনতম যোগ্যতার যা বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে কিছুটা আলাদা। নিচের ছকে ২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বি.এস-সি. ফিশারীজ (অনার্স) কোর্সে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়া তথা ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা উপস্থাপন করা হল যা আগামী শিক্ষাবর্ষে উল্লেখিত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে এই কোর্সে ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা সম্পর্কে একটা ধারণা পেতে সহায়তা করবে।

 

বিশ্ববিদ্যালয় এবং অনুষদ/ইনস্টিটিউট/বিভাগ যে অনুষদ/ইউনিট/গ্রুপের মাধ্যমে ভর্তি হতে হবে ন্যূনতম যোগ্যতা (২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষে)
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়,ফিশারীজ বিভাগ, কৃষি অনুষদ জি ইউনিট বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২০০৬, ২০০৭ বা ২০০৮ সালে এস.এস.সি ও ২০০৯ বা ২০১০ সালে এইচ.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৮ এবং আলাদা আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫ থাকতে হবে।
জীববিজ্ঞান বা কৃষিশিক্ষায় ন্যূনতম জিপি ২ থাকতে হবে
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ,মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ বিজ্ঞান গ্রুপে ২০০৭ বা ২০০৮ সালে এস.এস.সি ও ২০০৯ বা ২০১০ সালে এইচ.এস.সি অথবা সমমানের পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় ছাড়া সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৭ এবং আলাদা আলাদাভাবে উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩ থাকতে হবে। এস.এস.সি এবং এইচ.এস.সি বা সমমানের পরীক্ষায় পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত, জীববিদ্যা ও ইংরেজি বিষয়ের প্রত্যেকটিতে ন্যূনতম জিপিএ ২ থাকতে হবে।
হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, দিনাজপুর,ফিসারিজ অনুষদ এ ইউনিট ২০০৭ বা ২০০৮ সালে এস.এস.সি এবং ২০০৯ বা ২০১০ সালে এইচ.এস.সি বা সমমানের পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৬.৫ এবং উভয় পরীক্ষায় আলাদা আলাদাভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৩ থাকতে হবে এবং চতুর্থ বিষয়ে ন্যূনতম সি গ্রেড থাকতে হবে। এইচ.এস.সিতে পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, জীববিজ্ঞান বা গণিত/কৃষি বিজ্ঞানে পাশকৃত হতে হবে।অথবা ও লেভেলে কমপক্ষে ৫টি বিষয়ে গড়ে বি গ্রেড এবং এ লেভেলে পদার্থ, রসায়ন, জীব বিজ্ঞান ও গণিত/কৃষি বিজ্ঞানে কমপক্ষে গড়ে সি গ্রেড পেতে হবে।
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ বিজ্ঞান গ্রুপে ২০০৭ বা ২০০৮ সালে এস.এস.সি ও ২০০৯ বা ২০১০ সালে এইচ.এস.সি অথবা সমমানের পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৬.৫ এবং আলাদা আলাদাভাবে উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় ছাড়া ন্যূনতম জিপিএ ৩ থাকতে হবে। এইচ.এস.সি অথবা সমমানের পরীক্ষায় পদার্থবিদ্যা, রসায়নবিদ্যা, গণিত ও জীববিদ্যা বিষয়ের প্রতিটিতে ন্যূনতম জিপিএ ৩ এবং ইংরেজিতে ন্যূনতম জিপিএ ২ থাকতে হবে
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, দুমকি, পটুয়াখালী,মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ এ ইউনিট ২০০৭ বা ২০০৮ সালে এস.এস.সি ও ২০০৯ বা ২০১০ সালে এইচ.এস.সি বা সমমানের পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে জিপিএ ন্যূনতম ৬ এবং আলাদা আলাদাভাবে যে কোন একটিতে ন্যূনতম জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে। পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, গণিত ও জীববিদ্যাসহ পঠিত সকল বিষয়ে ন্যূনতম জিপি ২ থাকতে হবে।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সালনা, গাজীপুর,ফিশারিজ অনুষদ ফিশারিজ অনুষদ বিজ্ঞান গ্রুপে ২০০৭ বা ২০০৮ সালে এস.এস.সি ও ২০০৯ বা ২০১০ সালে এইচ.এস.সি পরীক্ষা সমমানের সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৭ এবং এবং আলাদা আলাদাভাবে উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩ থাকতে হবে। এইচ.এস.সি তে পদার্থবিদ্যা, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে ন্যূনতম বি গ্রেড থাকতে হবে।অথবা ও লেভেল পরীক্ষার চারটি পেপারের প্রতিটিতে কমপক্ষে বি গ্রেড এবং এ লেভেল পরীক্ষার পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, গণিত ও ইংরেজি বিষয়ের প্রতিটিতে কমপক্ষে বি গ্রেড থাকতে হবে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়,ফিসারিজ বিভাগ,
জীববিজ্ঞান অনুষদ
ক ইউনিট ২০০৯ বা ২০১০ সালে বিজ্ঞান/কৃষিবিজ্ঞান শাখায় এইচ.এস.সি/আলিম পরীক্ষা বা সমমানের পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় ছাড়া সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৮ থাকতে হবে।
ও লেভেল পরীক্ষায় অন্তত ৫ টি বিষয়ে এবং ২০০৯/২০১০ সালের এ লেভেল পরীক্ষায় বিজ্ঞানে অন্তত ২টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। উল্লেখিত ৭টি বিষয়ের ৩টিতে অন্তত বি গ্রেড এবং অন্য ৪টিতে অন্তত সি গ্রেড পেতে হবে।
এছাড়াও বিভাগ ভিত্তিক ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতাও নির্ধারণ করা থাকে।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়,ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ জি ইউনিট এস.এস.সি/দাখিল/সমমান পরীক্ষা এবং বিজ্ঞান/কৃষি বিজ্ঞান শাখায় এইচ.এস.সি/আলিম/সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় ছাড়া সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৭ থাকতে হবে। তবে উভয় পরীক্ষাতেই অন্তত জিপিএ ৩ থাকতে হবে। জীব বিজ্ঞান/কৃষি বিজ্ঞান এবং গণিত/পরিসংখ্যান বিষয়ে আলাদা আলাদাভাবে সি গ্রেড থাকতে হবে।
২০০৭ বা তৎপরবর্তী সালে ন্যূনতম ২টি বিষয়ে বি ও ৩টিতে সি গ্রেড সহ ও লেভেল এবং ২০০৯/২০১০ সালে ১টি বিষয়ে বি ও ২টিতে সি গ্রেডসহ এ লেভেল পাশ করতে হবে।
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়,ফিসারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিন,

লাইভ সায়েন্স স্কুল

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগ এ গ্রুপ বিজ্ঞান বিভাগে ২০০৭/২০০৮ সালে এস.এস.সি বা সমমান ও ২০০৯/২০১০ সালে এইচ.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম জিপিএ ৬.৫ এবং আলাদা আলাদাভাবে ৪র্থ বিষয়সহ যথাক্রমে ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫ ও ৩ থাকতে হবে। এইচ.এস.সিতে প্রতিটি বিষয়ে ন্যূনতম সি গ্রেড থাকতে হবে।ও লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞানসহ ৫টি বিষয়ে এবং এ লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞানের মধ্যে অন্তত ২টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে উভয় পরীক্ষায় মোট ৭টি বিষয়ের মধ্যে কমপক্ষে ৩টিতে বি ও ৪টিতে সি গ্রেড থাকতে হবে।
এইচ.এস.সি/সমমান/এ লেভেলে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান পঠিত হতে হবে।
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,
এ্যাকুয়াকালচার এন্ড ফিশারিজ, জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদ

পুনশ্চ: আমাদের আন্তরিক প্রচেষ্টার পরও কিছু তথ্য অসম্পূর্ণ থেকে গেল। ভবিষ্যতে তা আপডেট করার ইচ্ছা রইল। আরও তথ্য আপনাদের জানা থাকলে অনুগ্রহকরে মন্তব্যে জানানোর জন্য অনুরোধ করছি।


Visited 1,455 times, 1 visits today | Have any fisheries relevant question? Ask here

Visitors' Opinion

লেখক

শিক্ষার্থী, ফিশারীজ বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী-৬২০৫, বাংলাদেশ। বিস্তারিত

Leave a Reply