ক্যাটাগরি: মাৎস্য জীববিজ্ঞান | শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যা

বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ ও এর নামকরণ

বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ

ক. Tenualosa ilisha (Sri Lankan hilsa), খ. Hilsa ilisha (পরিণত), গ. Hilsa ilisha (জাটকা)

বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ। এটি অত্যন্ত সুস্বাদু মাছ। যার ফলে এর কদরও অত্যন্ত বেশি। ইলিশ নোনা পানির মাছ। তবে আমাদের জাতীয় মাছ ইলিশ (Hilsa ilisha) বংশবিস্তারকালে নদীর উজানের দিকে অভিপ্রয়াণ করে থাকে। তাই বাংলাদেশের বৃহৎ নদীসমূহ যথা পদ্মা, যমুনা, মেঘনা ইত্যাদিতে এরা প্রচুর পরিমাণে জেলেদের জালে ধরা পড়ে। ভারতের ফারাক্কা বাঁধ দেয়ার পূর্বে এরা এককালে রাজশাহীসহ গোয়ালন্দ এলাকায় প্রচুর …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: অঙ্গসংস্থানবিদ্যা | মাৎস্য জীববিজ্ঞান | শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যা

প্রোন (Prawn) ও শ্রিম্প (Shrimp) এর মধ্যে পার্থক্য

গলদা চিংড়ি

গলদা চিংড়ি Freshwater Giant Prawn, Macrobrachium rosenbergii

তাত্ত্বিকভাবে প্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় তুলনামূলক বড় আকারের চিংড়িকে প্রোন (Prawn) এবং ছোট আকারের চিংড়িকে শ্রিম্প (Shrimp) বলা হয়ে থাকে। প্রোনের প্রথম দুই জোড়া বক্ষ উপাঙ্গ চিমটা (Pincer) যুক্ত যার মধ্যে দ্বিতীয় জোড়া চিমটা সবচেয়ে বড়, ফুলকা ল্যামিলার (lamellar) তথা প্লেট সদৃশ (plate-like) এবং উপবর্গ প্লিওকাইমাটা (Pleocyemata) এর অন্তর্ভুক্ত। অন্যদিকে শ্রিম্পের প্রথম তিন জোড়া বক্ষ উপাঙ্গ চিমটা যুক্ত যার মধ্যে প্রথম জোড়া চিমটা তুলনামূলক বড়, ফুলকা শাখান্বিত (branching) এবং উপবর্গ ডেন্ড্রোব্রাঙ্কিয়াটা (Dendrobranchiata) এর অন্তর্ভুক্ত। প্রোনের উদাহরণ হিসেবে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে গলদা চিংড়ি (Freshwater Giant Prawn, Macrobrachium rosenbergii) …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: অঙ্গসংস্থানবিদ্যা | মাৎস্য জীববিজ্ঞান | শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যা

চিংড়ির উপাঙ্গ পরিচিতি (চিত্রসহ)

চিংড়ির প্রতি দেহখণ্ডকে একজোড়া করে মোট উনিশ জোড়া উপাঙ্গ থাকে। অবস্থানের উপর ভিত্তিকরে এদেরকে প্রধানত তিন ভাগে ভাগ করা যায়। যথা- শির-উপাঙ্গ, বক্ষ-উপাঙ্গ ও উদর-উপাঙ্গ। চিংড়ির শির-উপাঙ্গ পাঁচ জোড়া, বক্ষ-উপাঙ্গ আট জোড়া এবং উদর-উপাঙ্গ ছয় জোড়া। শির-উপাঙ্গ ও বক্ষ-উপাঙ্গগুলো সেফালোথোরাক্সে (Cephalothorax) এবং উদর-উপাঙ্গ উদরে (Abdomen) অবস্থান করে। চিংড়ির একটি আদর্শ উপাঙ্গ তিনটি প্রধান অংশ নিয়ে গঠিত হয়। যথা-

দেহের সাথে যুক্ত প্রোটোপোডাইট (Protopodite) ভিতরের দিকের অংশ এন্ডোপোডাইট (Endopodite) এবং বাইরের দিকের অংশ এক্সোপোডাইট (Exopodite)

প্রোটোপোডাইট আবার দুটি অংশ নিয়ে গঠিত হয় যাদের একটি কক্সোপোডাইট বা সংক্ষেপে কক্সা (Coxa) এবং এর সাথে যুক্ত আরেকটি অংশ হচ্ছে বেসিপোডাইট বা বেসিস (Basis)। অনেক …বিস্তারিত

ক্যাটাগরি: মাৎস্য জীববিজ্ঞান | শ্রেণিবিন্যাসবিদ্যা

কমলা টাকি: বাংলাদেশে নতুন প্রজাতির টাকি মাছ?

কমলা টাকি: বাংলাদেশে নতুন প্রজাতির টাকি মাছ?

কমলা টাকি: বাংলাদেশে নতুন প্রজাতির টাকি মাছ?

উজ্জ্বল কমলা বর্ণের মাঝে অসংখ্য কালো বিন্দুর উপস্থিতিই মাছটিকে বাংলাদেশের অন্যান্য টাকি মাছ থেকে আলাদা করেছে। টাকি মাছের দেহের মত গড়ন বিশিষ্ট হলেও মাছটি বাংলাদেশে এ যাবত প্রাপ্ত পাঁচ প্রজাতির টাকি মাছ থেকে অনেকটাই আলাদা। দেহের বর্ণ বৈশিষ্ট্য ছাড়া অন্যান্য বৈশিষ্ট্যের দিক থেকে মাছটির সাথে সবচেয়ে বেশি মিল খুঁজে পাওয়া যায় দেশীয় তিলা সোলের (Channa barca) …বিস্তারিত